করোনা আক্রান্ত কংগ্রেস নেতা। শুক্রবার নিজেই ট্যুইট করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানালেন সঞ্জয় ঝা। বললেন, ‘কখনই ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ নয়।’

আগামী ১০-১২ দিন তিনি কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন বলে জানিয়েছেন। তবে তাঁর কোনও উপসর্গ নেই। এদিন ট্যুইট করে বলেন, ‘সংক্রমণের সম্ভাবনা কখনই উড়িয়ে দেওয়া উচিৎ নয়। আমাদের প্রত্যেকেরই ঝুঁকি আছে।’

একদিনে আক্রান্তের সংখ্যায় ফের রেকর্ড ভারতের। ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল ৬০০০। শুধুমাত্র বৃহস্পতিবার ভারতের আক্রান্ত হয়েছে ৬০৮৮ জন।

এদিকে ভারতের আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১ লক্ষ ১৮ হাজার ৪৪৭। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৫৮৩। ৪৮০০০ মানুষ সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে ৬৬,৩৩০ জন চিকিৎসাধীন। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৪৮,৫৩৩ জন।

আগামী ৩১ মে পর্যন্ত দেশজুড়ে জারি থাকবে লকডাউন। এই ১৪ দিনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে নতুন গাইডলাইন জারি করা হয়েছে।

পাশাপাশি যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা শুরু করতে চলেছে রেলমন্ত্রক। জুন মাসের শুরু থেকে প্রতিদিন ২০০টি ট্রেন চলবে বলে জানানো হয়েছে রেল মন্ত্রকের পক্ষ থেকে। এক্ষেত্রেও যাত্রীদের ফেস মাস্ক লাগিয়ে ও সামাজিক দূরত্ব মেনে ট্রেনে চড়তে হবে বলে জানানো হয়েছে। এই ট্রেনগুলি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হবে না।

এর আগে প্রাথমিকভাবে ১৫ জোড়া বিশেষ শীততাপ নিয়ন্ত্রিত ট্রেন চালু করা হয়। ১২ই মে থেকে চালু হয় ট্রেন পরিষেবা, তবে শর্তসাপেক্ষে। কোনও কোনও ট্রেন চলে সপ্তাহে ২ দিন, কোনওটা ৩ দিন আবার কোনও ট্রেন চলে প্রত্যেকদিনই। এই বিশেষ এসি ট্রেনগুলিতে যাত্রা কিছুটা নিয়ম মেনে করানো হচ্ছে। এই ট্রেনে চড়া যাত্রীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আরোহীদের মোবাইল ফোনে আরোগ্য সেতু অ্যাপ্লিকেশনও ডাউনলোড করতে হবে বলে জানানো হয়েছিল।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।