স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নির্বাচনে দুই দলের আসন সমঝোতা হয়নি। অথচ দুই দলই একসুরে ৩২৪ ধারা নিয়ে কমিশনকে তোপ দাগল। সিপিএমের সুরে সুরে মিলিয়ে কংগ্রেসও দাবি করল, তৃণমূল-বিজেপিকে সুবিধা দিতেই কমিশন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর প্রচার বন্ধ করা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে তিনি বলেন, কমিশন বিজেপির তল্পিবাহক হিসেবে কাজ করছে। আজ মোদীর সভার জন্য রাত ১০টা পর্যন্ত ছাড় দিল প্রচারে। কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা প্রদীপ ভট্টাচার্য বলেন, দেশের নির্বাচনী ইতিহাসে এই প্ৰথম এমন ঘটনা ঘটল। সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনা করা উচিত ছিল। আসলে ওরা তৃণমূল-বিজেপির সুবিধামতো কাজ করছে । বুধবার সিপিএমের রাজ্য সম্পাদকও এই বিষয়ে একই মন্তব্য করেছিলেন।

বুধবার সাত দফার ভোটের প্রচার নিয়ে যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন। সেই সিদ্ধান্ত অনুসারে, আজ অর্থাৎ বৃহস্পতিবার রাত ১০টার পর থেকে কোনও রাজনৈতিক দল পশ্চিমবঙ্গে প্রচার করতে পারবে না। রবিবার রাজ্যের তিন জেলার আট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ। নিয়ম অনুসারে, শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রচার শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২০ ঘণ্টা আগেই প্রচার শেষ করে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। সংবিধানের ৩২৪ ধারা অনুযায়ী এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়।