ইংরেজবাজার: অবিলম্বে মালদা জেলার ২০০৯-১০ সালের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্যানেল প্রকাশের দাবিতে জোরদার আন্দোলনে নামছে মালদহ জেলা কংগ্রেস৷ প্যানেল প্রকাশ্যের দাবিতে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা দফতরের সামনে বিক্ষোভ ও ডেপুটেশন জমা দেওয়া কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয়েছে৷ একই সঙ্গে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ পালনে সরকারি উদাসীনতার অভিযোগ তুলে লাগাতার আন্দোলনেরও হুঁশিয়া দেওয়া হয়েছে৷

আগামীকাল, শুক্রবার বেলা ১১টায় মালদহ ডিপিএসসি’র অতুল মার্কেট সংলগ্ন মায়দানে মালদহ কংগ্রেসের তরফে সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে৷ জেলা কংগ্রেস সভানেত্রী তথা উত্তর মালদার সাংসদ মৌসম নূরের নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে৷

চাকরিপ্রার্থীদের দাবি, মালদহ জেলায় ২০০৯ সালে ১৩৩১ জন প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়৷ ২০১৯ সালে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হওয়ার পর ২০১০ সালে পরীক্ষা নেওয়া হয়৷ অভিযোগ, ২০১১ সালে সরকার পরিবর্তন হওয়ার পর বাতিল হয় পরীক্ষা৷ ২০১৪ সালে লিখিত পরীক্ষা ও ২০১৫ সালের ইন্টারভিউ নেওয়া পর মামলার জটিলতায় নিয়োগটি আটকে যায়। কিন্তু বিগত ৭ সেপ্টেম্বর কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি শ্রী অরিজিত বন্দ্যোপাধ্যায় ১৪ দিনের মধ্যে এই নিয়োগের প্যানেল প্রকাশ ও দ্রুত নিয়োগের নির্দেশ দেন।

আদালতের নির্দেশ জারি হাওয়ার তিন মাসের পেরিয়ে গেলেও মালদহ ডিপিএসসির কর্তৃপক্ষের কোনও হেলদোল দেখাচ্ছে না বলে অভিযোগ পড়ুয়াদের৷ চাকরিপ্রার্থী ওয়াসিম আকতার বলেন, ‘‘মালদহ ডিপিএসসি কর্তৃপক্ষ কী নিজেদের কে সংবিধান তথা আইনি ব্যবস্থার ঊর্ধ্বে মনে করছেন? হাইকোর্টের নিয়োগের অর্ডার থাকা সত্ত্বেও আজ প্রায় ৫ হাজার ছেলেমেয়ের সঙ্গে কেন বঞ্চনা করা হচ্ছে? কর্তৃপক্ষের এই ঘটনার প্রতিবাদে আগামীকাল শুক্রবার মালদহ ডিপিএসসিতে বিশাল জমায়েতের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিতে চাইছি, সরকারের এই নিয়োগ নিয়ে টালবাহানা আমরা কোনও ভাবেই মানছি না৷’’

- Advertisement -