স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: শব্দ থেকে একটি অক্ষর মিসিং৷ ব্যস তাতেই ঘুরে গেল গোটা বাক্যের মানে৷ আর এমন মানে বদলে যাওয়া ফ্লেক্স নিয়ে পদযাত্রা করে মাথা কাটা গেল কংগ্রেসীদের৷

বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে রাস্তায় নেমে গর্জে ওঠে কংগ্রেস৷ ডাক দেয় বিক্ষোভ মিছিলের৷ কংগ্রেস কর্মীরা হাতে ফ্লেক্স নিয়ে বেরিয়ে পড়েন রাস্তায়৷৷ সেই মিছিলে আবার পা মেলান প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরী৷ কিন্তু প্রচার মাধ্যমের নজর কেড়ে নেয় একটি ফ্লেক্স৷ কৌতুহল ওঠা স্বাভাবিক এমন কী ছিল তাতে? ক্যামেরার লেন্সটা ভালো করে জুম করতেই চোখে পড়ে ভুলটি৷ ফ্লেক্সে লেখা ‘বিদ্যুতের স্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল৷’

আরও পড়ুন: অসমের গণহত্যার প্রতিবাদে লাগাতার আন্দোলন চলবে, হুঁশিয়ারি সুব্রতর

আসলে লেখাটা হবে ‘বিদ্যুতের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল’৷ কিন্তু স্বাভাবিকের আগে ‘অ’ বাদ পড়ে যাওয়ায় বদলে গেল গোটা বাক্যের মানে৷ ফ্লেক্সটি দেখা মাত্র নিন্দুকদের হাসি থামে আর না৷ বিদ্রুপ করে অনেকেই বলেন, বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি যদি স্বাভাবিকই হবে তাহলে রাস্তায় নেমে কংগ্রেসের এত হাকডাক কীসের৷

ফ্লেক্সটা হাতে নেওয়ার পর কেউ সেটি পড়ে দেখারও প্রয়োজন মনে করেনি৷ নইলে এমন ভুলে ভরা ফ্লেক্স নিয়ে মিছিলে হাঁটার ঝুঁকি বোধহয় কংগ্রেসীরা নিতেন না৷ তবে সেই ভুলটি যে কারোর চোখে পড়েনি তার প্রমাণ সেই ফ্লেক্সটিকে মিছিলের সামনে রেখে অধীর চৌধুরী পার্ক স্ট্রীট থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত পদযাত্রা৷

আরও পড়ুন: ‘হাজার বিদেশ সফর করেও কালো টাকা ফেরাতে পারবেন না মোদী’

মিছিল শেষ হওয়ার পর যদি ভুলটা কারোর চোখে পড়ে তাহলে বোধহয় কংগ্রেসীরাও তাদের হাসি চেপে রাখতে পারতেন না৷ তবে লোকসভা নির্বাচনের আগে মূল্যবৃদ্ধির মত হাতে গরম ইস্যু পেয়েও, এইভাবে ছেলেখেলা করার কোন মূল্য চোকাতে হবে কংগ্রেসকে, উঠছে সেই প্রশ্ন৷ এখন দেখার এই ড্যামেজ কন্ট্রোল কীভাবে করে প্রদেশ কংগ্রেস৷