কানপুর: দিন যত এগোচ্ছে ততই যেন কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছেন সমাজবাদী পার্টি প্রধান অখিলেশ সিং যাদব৷ বৃহস্পতিবার কানপুরে দলীয় সভা করেন অখিলেশ৷ সেখানেই কংগ্রেসকে ‘প্রতারক দল’ বলে তোপ দাগেন তিনি৷

আরও পড়ুন: অর্জুন ডেরায় উপনির্বাচনে লড়বেন মদন মিত্র

২০১৭ সালে উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা ভোটে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট করেছিল সমাজবাদী পার্টি৷ সেই জোটের তিক্ত অভিজ্ঞতার কথাই এদিন কানপুরের দলীয় সভায় বলেন বাবুয়া৷ অখিলেশের কথায়, কংগ্রেস দলের অতি অহঙ্কারের জন্যই সেদিন জোট লড়াই দিতে ব্যর্থ হয়৷

এদিন প্রচার সবায় সমাজবাদী পার্টি সুপ্রিমো বলেন, ‘‘আমাদের জোট হয়েছিল ঠিকই৷ কিন্তু তখন বুঝতে পারিনি কংগ্রেসের অতি অহঙ্কারের বিষয়টি৷ কংগ্রেসের কাছে জোটের থেকেও গুরুত্বপূর্ণ অহঙ্কার৷’’ এই জন্যই একসঙ্গে কাজ চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি৷

আরও পড়ুন: মদন ছাড়াও বাকি বিধানসভা উপনির্বাচনে মমতা কাদের প্রার্থী করলেন জানুন

মুখে না বললেও, সাইকেলের চালক বুঝিয়ে দিয়েছেন কংগ্রেস নিয়ে অস্বস্তির মূল বিষয়টি৷ তাই এবারও উত্তরপ্রদেশের মহাজোটে মায়া-অখিলেশ দলে নেননি রাহুল গান্ধীর দলকে৷ প্রচারেও বুয়া-বাবুয়ার গলা থেকে বেড়িয়ে আসছে তীব্র কংগ্রেস বিদ্বেষ৷

ফাইল ছবি

নির্বাচনের আগে গত ৬ মার্চ জোট ঘোষণা করে সমাজবাদী পার্টি, বহুজন সমাজ পার্টি ও রাষ্ট্রীয় লোকদল। উত্তরপ্রদেশের ৩৮টি আসনে প্রার্থী দিয়েছে বসপা, ৩৭টি আসনে সপা এবং ৩টি আসনে আরএলডি৷

আরও পড়ুন: মহুয়ার সম্পর্কে কুরুচিকর মন্তব্য, বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে পদক্ষেপের নির্দেশ

অহঙ্কারের কথা বলে জোট থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে কংগ্রেসকে৷ তবে রাজনৈতিক মহলের মতে মায়া অখিলেশের এই সুর চড়ানোর কারণ অন্য৷ মূলত পিছলে বর্গের ভোটই পুঁজি সপা বসপার৷ মোদীকে সিংহাসন চ্যূত করতে সেই ভোট ব্যাঙ্কে ভাঙন চায় না বুয়া-বাবুয়া৷ অতীতের অভিজ্ঞতা বলছে কংগ্রেসকে সঙ্গে নিলেই পিছলে বর্গের ভোট প্রতিপক্ষে চলে যায়৷ তার পুনরাবৃত্তি করে বিজেপিকে সুবিধা করে দিতে নারাজ তারা৷ তাই আপাতত প্রতারক বলে ভোট বৈতরণী পারের চেষ্টা তাদের৷ ভোটের পর অবশ্য এই অবস্থানে বদল হতে পারে৷ সুযোগ থাকলে হাতের জোড়েই দিল্লির সরকারের শরিক হতে পারে এই দুই দল৷