নয়াদিল্লি: জাতীয় কংগ্রেসের ইতিহাসেই ইতিহাস তৈরি হল৷ এই প্রথম কোনও রূপান্তরকামী মহিলাকে মহিলা কংগ্রেসের জাতীয় সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করে চমক দিল দল৷ রূপান্তরকামী সাংবাদিক অপ্সরা রেড্ডিকে এই পদে নির্বাচিত করা হয়েছে৷

মঙ্গলবার কংগ্রেসে যোগদানের জন্য তাঁকে অভ্যর্থনা জানান রাহুল৷ বলেন নিজের যোগ্যতায় এই পদে নির্বাচিত হয়েছেন অপ্সরা৷ তাঁর দলের প্রতিনিধিত্ব কংগ্রেসের সম্পদ৷ কংগ্রেস সাংসদ সুস্মিতা দেব ট্যুইটারে লেখেন লোকসভা নির্বাচনের আগে অপ্সরার দলে গুরুত্বপূর্ণ পদ পাওয়া নি:সন্দেহে বড় ঘটনা৷

আরও পড়ুন : শরিক হুমকিতে মেঘালয়ে পতনের আশঙ্কায় বিজেপি

২০১৬ সালের মে মাসে প্রাক্তন সাংসদ অপ্সরা এআইএডিএমকে যোগ দেন৷ তৎকালীন পার্টি সুপ্রিমো জয়ললিতার মৃত্যুর পর গতবছর শশীকলা শিবিরে যোগ দেন তিনি৷ তবে পরে বিজেপি যোগ দিলেও এক মাসের বেশি সেখানে থাকেন নি তিনি৷ পরে বিজেপি ত্যাগ করে তাঁর বক্তব্য ছিল, ‘বিজেপি মুক্ত চিন্তা ভাবনার মানুষের জন্য নয়৷’ মঙ্গলবার এআইএমসি সভাপতি সুস্মিতা দেব ও কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর উপস্থিতিতে কংগ্রেসে এই নতুন পদ অলংকৃত করেন তিনি৷

নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর অপ্সরা রেড্ডি বলেন, তিনি মহিলাদের স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে কাজ করে যাবেন৷ তাদের নাগরিক অধিকার নিয়ে লড়বেন তিনি৷ কংগ্রেসের ইস্তাহারে পূর্ব ঘোষিত যে বার্তা রয়েছে, সেই বার্তা অনুযায়ী মহিলাদের হয়ে কাজ করার অঙ্গীকার নিয়েছেন তিনি৷

আরও পড়ুন : বিহারীরা মহারাষ্ট্রে থাকে, বাড়িতে ওদের বউ সন্তান প্রসব করে: বিধায়ক

এদিন তিনি বলেন, লিঙ্গ বৈষম্যের মাপকাঠিতে এখনও দেশের ৪০ শতাংশ মহিলা নিগ্রহ সহ্য করেন৷ অবহেলিত হন বা পরিবারের হাতে লাঞ্ছিতা ও হিংসার শিকার হন৷ এর মধ্যে অন্যতম শিশুদের যৌন নির্যাতন বলে দাবি তাঁর৷

সেই সব অসহায় মহিলাদের কণ্ঠস্বর হিসেবে তিনি কাজ করতে চান বলে জানিয়েছেন অপ্সরা৷ সেই লক্ষ্যেই কংগ্রেসের হাত ধরেছেন তিনি বলে এদিন মন্তব্য করেছেন এই রূপান্তরকামী সাংবাদিক ও সমাজকর্মী৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।