শুভেন্দু ভট্টাচার্য, কোচবিহার: বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ঢুকে বাড়ি ভাঙচুর ও কর্মীদের গ্রেফতারের অভিযোগ উঠল পুলিশের বিরুদ্ধে। বিজেপির অভিযোগ, গত ১১ এপ্রিল ঢাংডিংগুড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের রসের কুঠি এলাকায় বিজেপি কর্মীদের উপর হামলা করে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা।

এই ঘটনায় হামলার স্বীকার হয়েও বিজেপি কর্মীদের বিরুদ্ধেই অভিযোগ দায়ের করে তৃণমূল কংগ্রেস। এর পর তাঁদের আগাম জামিন হয় কোচবিহার জেলা আদালত থেকে। এর পরেই বুধবার রাত ১টা নাগাদ কোচবিহারের পুন্ডিবাড়ি ফাঁড়ির বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী আগাম জামিন পাওয়া তাপস চন্দ নামে ওই বিজেপি কর্মীর বাড়িতে চড়াও হয় এবং বাড়িতে ব্যাপক ভাংচুর চালায় বলে অভিযোগ। এরপর তাপস চন্দ ও তাঁর ছেলে রাজীব চন্দকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় বলে জানা গিয়েছে।

ওই রাতে তাপস চন্দের পাশের বাড়ির অন্য এক বিজেপি কর্মী সুনীল চন্দর বাড়িতেও ভাঙচুর করে পুলিশ।  তাপস চন্দের বাড়ির তিন খুলে দেওয়া হয়, এমনকি ঘড়ের বিভিন্ন জিনিস পত্র বাইরে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হয়। ঘড়ে থাকা ধান ও আলুও ছড়িয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ পুলিশের বিরুদ্ধে। বিজেপি কোচবিহার জেলা সভাপতি নিখিল রঞ্জন দে  অভিযোগ করেন, “কোনও রকম কারণ ছারাই দুই বিজেপি কর্মীর বাড়িতে ভাঙচুর চালিয়েছে এবং দুই জনকে গ্রেফতার করেছে৷ আমরা এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছি৷ পুলিশ সুপারকে পুরো বিষয়টা জানানো হয়েছে৷”

- Advertisement -