নয়াদিল্লি: করোনা পরিস্থিতিতে চারপাশেই যেন বিষন্নতার আবহ। সবদিকেই খারাপ খবর। এরই মধ্যে কিছু ভালো খবর আসছে। এরই মাঝে মহাকাশে দেখা যাবে এক অভূতপূর্ব দৃশ্য। আগামী সপ্তাহেই সেই বিরল দৃশ্যের সাক্ষী থাকতে চলেছে পৃথিবী।

তীব্র গতিবেগে পৃথিবীর দিকে ছুটে আসবে ধূমকেতু। তাঁর আলোর ছটার পরিধি কয়েক কিলোমিটার দীর্ঘ। আর সেই দৃশ্যই দেখা যাবে খালি চোখে। ধূমকেতুর নাম C/2020 F3। গত মার্চ মাসেই সেই ধূমকেতু আবিষ্কার করা হয়েছে। ১৪ জুলাই থেকে আকাশে দেখা যাবে তাকে।

তবে সেই ধূমকেতু শীতল। এখন তার লক্ষ্য পৃথিবী। দুরন্ত গতিতে সে পৃথিবীর দিকে এগিয়ে আসছে।

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, সাধারণত এই ধরনের দৃশ্য দেখার জন্য দূরবীক্ষণ যন্ত্রের প্রয়োজন হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে একেবারে খালি চোখেই দেখা যাবে সেই দৃশ্য। তবে টেলিস্কোপ দিয়ে আরও স্পষ্টভাবে দেখা যাবে এই দৃশ্য।

১৪ জুলাই মহাকাশে স্পষ্ট হয়ে জ্বলজ্বল করে উঠবে এই ধূমকেতু। এরপর একটু একটু করে এগিয়ে আসবে। ২২ থেকে ২৩ জুলাই আরও রূপসী হয়ে উঠবে ধূমকেতু। পরের ২০ দিন সূর্যাস্তের পর ২০ মিনিট করে দেখা যাবে সেই ধূমকেতু। প্রত্যেকদিন একই জায়গায় দেখা যাবে সেটিকে।

বংশ পরিচয় জানেন না বিজ্ঞানীরা। সে সূর্যের মায়া ত্যাগ করে এখন পৃথিবীর প্রদক্ষিণ লক্ষ্যে নিয়োজিত। তবে এই ধূমকেতুর সৌরমন্ডল ঘুরে দেখার আঁচ মার্চ মাসেই পেয়েছিলেন বিজ্ঞান মহল। তাঁরা জানিয়েছেন, উত্তর আকাশে খালি চোখে দেখা যাবে নিওওয়াইসকে। জানা যাচ্ছে, পাথর, গ্যাস আর বরফে তৈরি আগমনী ধূমকেতু। তার শরীরে রয়েছে পরিমন্ডল।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ