কলকাতা: করোনা আবহে এ বছর আর কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খুলছে না৷ এমনই বার্তা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ তবে যেভাবে অনলাইন ক্লাস চলছিল,তা চলবে৷ বাড়ানো হল কলেজে প্রথম বর্ষের ভর্তির সময়সীমা৷
রবিবার উপাচার্যদের সঙ্গে ভার্চুয়ালি বৈঠক করেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ সেখানেই উঠে আসে কবে খোলা হবে কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়৷ তাছাড়া সেমিস্টার পরীক্ষাও অনলাইনে নেওয়ার ভাবনা৷

বৈঠক শেষে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী জানান,করোনা পরিস্থিতিতে ডিসেম্বর মাসেও রাজ্যের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় খোলা সম্ভব নয়৷ আগামী বছর জানুয়ারি মাসে আবার উপাচার্যদের সঙ্গে রিভিউ বৈঠক করা হবে৷ ওই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে কবে থেকে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে৷

এদিন তিনি আরও জানিয়েছেন, যেসব কলেজে প্রথম বর্ষের ভর্তির সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সেই সব কলেজে ভর্তি নেওয়া যাবে৷ তবে উপাচার্যদের সঙ্গে ভার্চুয়াল বৈঠকের সিদ্ধান্ত জানানো হবে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে৷

লকডাউন ও করোনার জেরে বন্ধ রয়েছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়৷ গত মার্চ মাস থেকে রাজ্যে সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিও বন্ধ হয়ে যায়৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।