স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : শহরের সঙ্গে জেলাতেও হুড়মুড়িয়ে নামছে পারদ। এমনটাই জানাচ্ছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে মেঘ সরার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে নেমেছে পারদ। কলকাতায় যেমন সকাল থেকে ঠাণ্ডা অনুভূত হয়েছে, তেমনই ঠাণ্ডার সকাল কাটাল জেলা এবং গ্রামঅঞ্চলও৷

যথারীতি মাঝ ডিসেম্বর পেরোতে তবেই শীতের আভাস পাওয়া গেল দক্ষিণবঙ্গে। আবহাওয়া দফতর সবসময়েই বলে থাকে ডিসেম্বরের ১৫ তারিখ না পেরোলে দক্ষিণে জাঁকিয়ে শীত পড়ে না। তবু দক্ষিণবঙ্গের শীত আগেই চাই।

হাওয়া অফিস আগেই জানিয়েছিল নিম্নচাপ সরে গেলেই শীতপ্রেমীদের কাছে বয়ে আসবে সুখবর৷ উত্তরে হাওয়া ফের রাজ্যে প্রবেশে কোনও বাধা পাবে না৷ সেই মতোই অনুভূত হয়েছে শীতের পরশ৷ বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার তাপমাত্রা ১৩.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷ যা স্বাভাবিকের চেয়ে ১ ডিগ্রি কম৷ সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৪.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা আবার স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি কম৷

বৃহস্পতিবার কলকাতায় যেমন পারদ নেমেছে। তেমন অন্যান্য জেলাতে বুধবার থেকেই পারদ নেমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় বর্ধমানের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১২.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দিঘার তাপমাত্রা ১৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। হলদিয়ায় ১৪.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কৃষ্ণনগরের তাপমাত্রা সর্বনিম্ন ১২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পানাগড়ে তাপমাত্রা নেমেছে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। মেদিনীপুরে ১৩.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, শ্রীনিকেতনে ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং হাওড়ার উলুবেড়িয়ায় তাপমাত্রা নেমেছে ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।