চেন্নাই: তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা কগনিজেন্ট ঘোষণা করেছে, তাদের কর্মীদের (‌ যারা অ্যাসোসিয়েট অথবা তার তলার পদে রয়েছেন) মূল বেতনের থেকে ২৫ শতাংশ বেশি দেওয়া হবে এপ্রিল মাসে। বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস মহামারীর প্রেক্ষিতে এইসব কর্মীরা যেভাবে অস্বাভাবিকভাবে কাজ করে পরিষেবা সচল রেখেছে তার স্বীকৃতি স্বরূপ এই অতিরিক্ত বেতন দেওয়া হচ্ছে।

যে নীতি প্রতিমাসে সংস্থা পর্যালোচনা করে এমনটা করা হচ্ছে তাতে এই সংস্থার ভারতীয় কর্মীদের দুই-তৃতীয়াংশ সুবিধা পাবে। ২০১৯ সালে ‌‌‌‌৩১ ডিসেম্বরে এই সংস্থাটি ২০৩,৭০০ কর্মী‌ কর্মরত রয়েছে ভারতের ১৩ টি স্থানে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষণা করেছেন যাতে করোনাভাইরাস এই দেশে ছড়িয়ে না পড়ে। ফিলিপিন্সে জরুরি অবস্থা জারি হয়েছে।

তার প্রেক্ষিতে কগনিজেন্টের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ব্রায়ান হামফ্রিজ কর্মীদের চিঠি লিখে জানিয়েছেন, বিশ্ব জুড়ে‌ করোনা আটকাতে বিভিন্ন সরকারের পদক্ষেপকে সমর্থন করেন । তিনি আরো জানান, এই মহামারীর জন্য এই শিল্পক্ষেত্রে চাহিদা ধাক্কা খাবে, এবং তিনি অবহিত ‌ যা চাহিদা তা পূরণ করাও এখন কতটা কঠিন ।বর্তমানে এই সংস্থাটির বেশিরভাগ কাজ হচ্ছে ওয়ার্ক ফ্রম হোম।

সেখানে ভারত, ফিলিপিন্সে যে অস্বাভাবিক ভাবে কাজ করে পরিষেবা সচল রাখা হয়েছে তাকে স্বীকৃতি দিতে এপ্রিল মাসে কর্মীদের (অ্যাসোসিয়েট অথবা তার তলার পদে রয়েছেন) মূল বেতনের ২৫ শতাংশ অতিরিক্ত দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কগনিজেন্টের এই কর্তা। কগনিজেন্ট সহায়তা করে কোর ব্যাংকিং অপারেশনকে যাতে এইসব আর্থিক লেনদেনে নিরাপত্তা থাকে‌ এবং‌ করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের মেডিকেল ম্যানেজমেন্ট , ইনসিওরেন্স সলিউশনে ‌ সহায়তা করে থাকে।