আগরতলা: রাজ্যে বিমান পরিষেবা আরও বাড়ুক৷ টিকিটের দামও থাকুক আয়ত্তের মধ্যে৷ যাতে সারা বছর আকাশপথে যাতায়াতে রাজ্যের মানুষ সমস্যায় না পড়েন৷

এই দাবিতেই এবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দ্বারস্থ হলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ সটান চিঠি লিখলেন প্রধানমন্ত্রীর দফতরে৷ আর এই তথ্য সামনে আসার পর থেকেই হইচই শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনীতির অন্দরে৷

আরও পড়ুন: অবশেষে খোঁজ পাওয়া গেল টলিপাড়ার নিখোঁজ রুদ্রের

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, আগরতলা থেকে গত দু’সপ্তাহে বিমানের ভাড়া বেশ কয়েকগুণ বেড়ে গিয়েছে৷ গোটা ভারতের সঙ্গে ত্রিপুরার যোগাযোগের অন্যতম বড় মাধ্যম আকাশপথ৷ ফলে পরিস্থিতি সামাল দিতে তড়িঘড়ি বৈঠকে বসে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের মন্ত্রিসভা৷ সেই বৈঠকেই এই ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লেখার বিষয়টি স্থির হয়৷ তার পর মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব সমস্যা সমাধানে চিঠি দেন প্রধানমন্ত্রীর দফতরে৷

প্রশাসনের একটি সূত্রের বক্তব্য, কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ রাষ্ট্রমন্ত্রী জয়ন্ত সিনহা মঙ্গলবার এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেন৷ সমস্যা সমাধানে কেন্দ্র দ্রুত পদক্ষেপ করবে বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: স্ত্রীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক, প্রেমিকের হাতে খুন যুবক

এদিকে এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের মধ্যে ক্ষোভ বাড়ছে৷ কারণ, গত দু’সপ্তাহ ধরে উড়ান কমেছে আগরতলায়৷ সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে বিমানের ভাড়া৷

এদিকে রাজ্যবাসীর যোগাযোগের সমস্যার সমাধানের জন্য আসরে নেমে পড়েছে সিপিএমও৷ তাদের সাংসদ শঙ্করপ্রসাদ দত্ত এ নিয়ে চিঠি লিখেছেন কেন্দ্রীয় অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রী সুরেশ প্রভু৷

আরও পড়ুন: মাথায় বল লেগে হাসপাতালে তরুণ ক্রিকেটার

তাঁর দাবি, ২০১০ সাল থেকে এই সমস্যা চলছে৷ তৎকালীন ত্রিপুরা সরকারের (তখন বামেরা ক্ষমতায় ছিল) অনুরোধ উপেক্ষা করেই একের পর এক বিমান সংস্থা পরিষেবা তুলে নিতে শুরু করে৷ অনেক বিমান পরিবহণ সংস্থা আগরতলায় পরিষেবা দেয় না৷ অথচ নিয়ম অনুযায়ী উত্তর-পূর্ব ভারতের সব রাজ্যেই বিমান পরিষেবা দিতে হবে৷

শঙ্করপ্রসাদের বক্তব্য, কম ভাড়ার বিমান বলতে স্পাইস জেটে পরিষেবা পাওয়া যেত৷ তারাও গত পরিষেবা বন্ধ করে দিয়েছে৷ দু’দিন আগে ইন্ডিগো আগরতলা-কলকাতা সকালের ফ্লাইট বন্ধ করে দেয়৷ এর পর থেকে পরিস্থিতি আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠেছে৷

আরও পড়ুন: চাকরি খুঁজছেন? এই ব্যাংক নিয়ে এল প্রচুর সুযোগ

তাই স্পাইসজেট ও ইন্ডিগোর পরিষেবা স্বাভাবিক করার দাবিতে কেন্দ্রকে চিঠি লিখেছেন ওই সিপিএম সাংসদ৷ তাছাড়া তিনি আগরতলায় এয়ার ইন্ডিয়ার আরও একটা ফ্লাইট বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন৷

অন্যদিকে প্রশাসনের এক শীর্ষ আধিকারকের কথায়, আগে মনে করা হত রাজনৈতিক মতানৈক্যের কারণে কেন্দ্র আগরতলায় বিমান পরিষেবা বাড়ানোয় আগ্রহী নয়৷ কিন্তু এখন সেই পরিস্থিতি নেই৷ এখন ত্রিপুরায় বিজেপির সরকার৷ তার উপর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ত্রিপুরাবাসীর যোগাযোগের সমস্যা সমাধানে আগ্রহী৷ তাই দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে বলে তাঁর আশা৷

আরও পড়ুন: আমরা দুর্নীতিতে জড়িত নই, প্রথম সাংবাদিক বৈঠকে টিএমসিপি সভাপতি