শিলিগুড়ি: সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরোধিতায় এবার পাহাড়ে মিছিল করবেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার পাহাড়ে তৃণমূলের এই মিছিল ঘিরে রাজনৈতিক মহলে উত্তেজনা তুঙ্গে। সিএএ বিরোধী মিছিলে বিনয়পন্থী মোর্চার কর্মী-সমর্থকরা যোগ দেবেন। একইভাবে লেপচা-সহ অন্য জনগোষ্ঠীরও অনেকে তৃণমূলের কেন্দ্র-বিরোধী মিছিলে যোগ দেবেন বলে জানা গিয়েছে।

সমতলের পর এবার পাহাড়। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে এতদিন সমতলে প্রতিবাদ মিছিল করেছেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলকাতায় একাধিক সভা-মিছিলের পাশাপাশি মধ্যমগ্রাম, পুরুলিয়াতেও পথে নেমে আন্দোলনে সামিল হয়েছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। এবার লক্ষ্য পাহাড়। কেন্দ্র-বিরোধিতায় পাহাড়বাসীকেও একজোট করে আন্দোলনে নামতে তৎপর শাসকদল তৃণমূল। মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরে একাধিকবার পাহাড়ে এসেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও পাহাড়ে লোকসভা নির্বাচন ও বিধানসভা উপনির্বাচনে ভাল ফল করতে পারেনি ঘাসফুল শিবির।

বুধবারের কেন্দ্র-বিরোধী মিছিল বড় পরীক্ষা মোর্চা নেতা বিনয় তামাঙের কাছেও। তাঁর ডাকে পাহাড়বাসী কতটা স্বতস্ফূর্তভাবে তার একটা বড় উত্তর মিলবে বুধবার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে কেন্দ্র-বিরোধী মিছিলে পাহাড়ের গোর্খা সম্প্রদায়-সহ মোর্চা কর্মী-সমর্থকরা থাকবেন বলে আগেই জানিয়েছিলেন বিনয় তামাং। সিএএ ও এনআরসি ইস্যু নিয়ে পাহাড়ের মানুষের প্রতিবাদকে সামনে রেখে ফের সংগঠন শক্তিশালী করতে আসরে নেমেছেন বিনয়-অনীত শিবির। বুধবারের মিছিলেই নিজেদের শক্তি প্রমাণ করতে মরিয়া বিনয়-অনীতপন্থী মোর্চা শিবির।

বুধবার কেন্দ্র-বিরোধিতায় মিছিল হবে দার্জিলিং রাজভবন থেকে মোটরস্ট্যান্ড পর্যন্ত। তৃণমূলের নেতৃত্বে বুধবারের মিছিলে যোগ দেওয়া নিয়ে আগেভাগেই প্রস্তুতি সেরে ফেলেছেন বিনয় তামাং। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দার্জিলিং, মিরিক, কালিম্পং-সহ একাধিক এলাকায় সভা-বৈঠক সেরেছে বিনয়পন্থী মোর্চা শিবির। একইসঙ্গে পাহাড়ের যুব সম্প্রদায়কেও বুধবারের মিছিলে হাজির থাকতে অনুরোধ করা হয়েছে। পাহাড়ের কলেজের ছাত্রছাত্রীদেরও বুধবারের মিছিলে যোগ দিতে আহ্বান করা হয়েছে।

অসমে এনআরসির জেরে দেড় লক্ষ গোর্খা সম্প্রদায়ের মানুষের নাম বাদ গিয়েছে। আর তাই এরাজ্যেও এনআরসি হলে বিপাকে পড়তে পারেন লক্ষ-লক্ষ গোর্খা সম্প্রদায়ের মানুষজন। এই বিষয়টি তুলে ধরেই পাহাড়ের গোর্খা-সহ একাধিক জনগোষ্ঠীকে একজোট করতে চান তৃণমূলনেত্রী।