তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: নিজের জীবনের সঙ্গে রুপোলী পর্দার চিত্রনাট্যের ব্যাপক মিল খুঁজে পেয়েছেন বাঁকুড়ার বড়জোড়ার বেলিয়াতোড়ের বাসিন্দা টুম্পা কুণ্ডু। অধ্যাপক স্বামী উদয় ভানু কুণ্ডুর আকস্মিক মৃত্যুতে দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে অসহায় অবস্থার মধ্যে দিন কাটছিল তার।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জেলা সফরে এসেছিলেন। তিনি সার্কিট হাউসে থাকার সময় দেখা করার চেষ্টা করেছিলেন স্বামী হারা টুম্পা কুণ্ডু। কিন্তু কোন কারণে দেখা না হলেও চিঠি পেয়েই সরাসরি তাকে ফোন করেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার বিকেলে মূখ্যমন্ত্রী জেলা ছেড়ে যাওয়ার পরই তাঁর নির্দেশে টুম্পা কুণ্ডুর বাড়িতে গিয়ে অস্থায়ী চাকরীর নিয়োগপত্র তুলে দেন জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস। বর্তমানে তিনি বেলিয়াতোড় গ্রাম পঞ্চায়েতে চতুর্থ শ্রেণীর কর্মী হিসেবে কাজে যোগ দিয়েছেন।

এই ঘটনার প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে একটি জনপ্রিয় সিনেমার নাম করে বলেন, ”মমতাময়ী ‘মা’ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সৌজন্যে ঐ সিনেমার সঙ্গে আমার জীবনেরও অনেক মিল খুঁজে পেলাম। স্বামীকে হারিয়ে দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে চরম অসহায় অবস্থার মধ্যে কাটাচ্ছিলাম।” এবার কিছুটা হলেও আশার আলো দেখছেন বলে তিনি জানান।

বড়জোড়ার বিডিও ভাস্কর রায় বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে টুম্পা কুণ্ডুকে বেলিয়াতোড় গ্রাম পঞ্চায়েতে নিয়োগপত্র দেওয়া হয়েছে। ওখানে উনি বর্তমানে অস্থায়ী কর্মী হিসেবে কাজ করবেন বলেও তিনি জানান।