স্বচ্ছ ভারত অভিযান শুরু হয়েছে যখন তখন কম্পিউটার আর মোবাইল বাদ যায় কেন? তাই কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ এবার সাইবার স্বচ্ছকেন্দ্র গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছেন৷এজন্য তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রক আরও বড় এলাকা জুড়ে স্বচ্ছ ভারত মিশন চালু হয়েছে এবং এজন্য সাইবার স্বচ্ছকেন্দ্র গড়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এই ভারচুয়াল রিয়েলিটির জগতটাকে পরিষ্কারের জন্য৷যত বেশি করে ভারতীয়রা ইন্টারনেট পরিষেবা নিচ্ছে ততই তাদের মোবাইল অথবা কম্পিউটার ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ে৷এদিকে প্রধানমন্ত্রী তো সাইবার হানাকে একেবারে রক্তপাতহীন যুদ্ধের সঙ্গে তুলনা করেছেন৷

৯০ কোটির বটনেট ক্লিনিং অ্যান্ড মালওয়ার অ্যানালিসিস কেন্দ্রটি কম্পিউটার ল্যাপটপ এবং মোবাইলে অ্যান্টিভাইরাস সফটঅয়্যার সরবরাহ করবে ৷বাজারে যেসব অ্যান্টি ভাইরাস পাওয়া যায় তাদের বেশির ভাগই ট্রায়াল প্যাক অথবা কিনতে হয়৷ কিন্তু এই কেন্দ্র থেকে বিনামূল্যে আন্টি ভাইরাস পাওয়া যাবে এবং তা যে কেউ ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবে৷ ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থাকে এই বিষয়টি ব্যবহারকারীদের জানাতে বলা হয়েছে৷ কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখেই সাইবার স্বচ্ছ কেন্দ্র কাজ করবে৷এজন্য ইন্ডিয়ান কম্পিউটার এমার্জেন্সি রেশপনস টিম যা সাইবার নিরাপত্তার দিকটা অর্থাৎ হ্যাকিং ফিশিং ইত্যাদির দিকে নজর রাখবে৷এটি তথ প্রযুক্তি মন্ত্রকের অধীনে রয়েছে৷বিভিন্ন স্থানে হওয়া সাইবার আক্রমণের তথ্য সংগ্রহ করে তা বিশ্লেষণ করবে ৷ এরপর ওই হ্যাকার সংক্রান্ত তথ্য বিভিন্ন ব্যাংক এবং ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারীদের কাছে পাঠান হবে৷ সাইবার স্বচ্ছ কেন্দ্র অ্যান্টি ভাইরাস সফ্টঅয়্যার ব্যবহারকারীদের সরবরাহ করবে একেবারে নিদিষ্ট সাইবার আক্রমণ মোকাবিলায়৷ ১৩টি ব্যাংক এবং ৫৮টি ইন্টারনেট প্রদানকারী সংস্থাকে এই বিষয়ে ও আওতায় আনা হচ্ছে৷

Why should computers and mobiles be kept aside when Swachh Bharat Avijaan has begun. This project was started by the government. Now cyber world getting attention in it.

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও