এই বিতর্কিত প্রশ্নপত্র

ভোপাল: তুমুল সমালোচিত মধ্যপ্রদেশ সরকার। রাজ্যের স্কুলগুলির দশম শ্রেণির পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে একটি মানচিত্র দিয়ে সেখানে ‘আজাদ কাশ্মীর’ চিহ্নিত করতে বলা হয়েছে পড়ুয়াদের। এই ঘটনায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে রাজ্যজুড়ে। এমনকী ঘোর অস্বস্তিতে পড়েছে মধ্যপ্রদেশ সরকারও। ঘটনার তদন্ত করে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ।

বেজায় অস্বস্তিতে মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকার। রাজ্যের সরকারি স্কুলগুলিতে দশম শ্রেণির পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে এবার পড়ুয়াদের ‘আজাদ কাশ্মীর’ চিহ্নিত করতে বলা হয়েছে। সাধারণত পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরকে পাক প্রশাসন ‘আজাদ কাশ্মীর’ বলে থাকে।

এই শব্দবন্ধ নিয়ে বরাবর আপত্তি তুলে এসেছে ভারত। পাক অধিকৃত কাশ্মীর আসলে ভারতেরই অঙ্গ বলে দাবি উঠেছে বারবার। বিষয়টি নিয়ে দশকের পর দশক ধরে পাকিস্তানের সঙ্গে ডায়লগ চালিয়ে যাচ্ছে ভারত।

অতি সংবেদনশীল এই বিষয়টি এবার ভারতেরই একটি অঙ্গরাজ্য তাদের পাঠ্যের অন্তর্ভুক্তি করায় এবার বেজায় অস্বস্তিকর পরিবেশ তৈরি হয়েছে। মধ্যপ্রদেশ শিক্ষা দফতরের এহেন ভূমিকায় নিন্দার ঝড় উঠেছে রাজ্যজুড়ে। পড়ুয়ারাএ প্রশ্নপত্রে ‘আজাদ কাশ্মীর’ চিহ্নিত করতে গিয়ে বেজায় অস্বস্তিতে পড়েছেন।

বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথের কানে আসতেই তিনি নড়েচড়ে বসেছেন। ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বর্ষীয়ান এই রাজনীতিক। গোটা ঘটনা তদন্ত করে দেখা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন কমলনাথ। একইসঙ্গে প্রশ্নপত্র তৈরিতে যাঁরা অভিযুক্ত তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ারও আশ্বাস দিয়েছেন কমলনাথ।

ইতিমধ্যেই মধ্যপ্রদেশে দশম শ্রেণির ওই প্রশ্নপত্র তৈরির দায়িত্বে থাকা দুজনকে চিহ্নিত করে তাঁদের সাসপেন্ড করেছে মধ্যপ্রদেশ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর জম্মু ও কাশ্মীরেরই একটি অংশ। ১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্টের পর ওই অংশ সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে দখল করে রয়েছে পাকিস্তান।