নিউজ ডেস্ক: সকাল থেকেই ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত হয়ে উঠল বীরভূমের মল্লারপুর৷ বিজেপির পোলিং এজেন্টের আঙুল কেটে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূলের বিরুদ্ধে৷ পালটা তৃণমূলের স্থানীয় নেতার বাড়ি ভাঙচুর করে বিজেপি বলে অভিযোগ৷

গতকাল ভোট চলাকালীন বিজেপির পোলিং এজেন্ট বাধা দেয় তৃণমূল কর্মীরা বলে অভিযোগ৷ সেই ঘটনার রেশ ছড়িয়ে পড়ে আজ সকালেও৷ তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ায় মল্লারপুরে৷ ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছলে রাজনৈতিক দলের কর্মীদের সাথে বাদানুবাদে তারা জড়িয়ে পড়ে৷ পুলিশকে ঘিরে দেখানো হয় বিক্ষোভ৷

আরও পড়ুন : বর্ধমানের ভোটছবি জুড়ে ছাপ্পা-সংঘর্ষ, তৃণমূল বলছে শান্তিপূর্ণ

এদিকে ঘটনার সূত্রপাত বিজেপি এজেন্টের ওপর হামলা দিয়ে বলে স্থানীয় সূত্রে খবর৷ অভিযোগ, মঙ্গলবার সকালে বিজেপি এজেন্ট সহ ২জনকে কোপ মারে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা৷ আঙুল কাটা যায় বিজেপির পোলিং এজেন্টের৷ তাঁকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷

এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা৷ এলাকার তৃণমূল নেতার বাড়িতে হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ৷ এছাড়াও পরপর হামলা চলে আরও বেশ কয়েকটি বাড়িতে৷ এক মহিলার হাতে গুরুতর আঘাত লাগে৷ তাঁর চিকিৎসা শুরু হয়৷ আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয় তৃণমূলের অনেকগুলি পতাকায়৷

আরও পড়ুন : ভোট মিটলে দেখে নেব, সার্কেল অফিসারকে হুমকি বিজেপি নেতার

তবে এলাকায় পুলিশ এলেও, তাদের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে৷ স্থানীয় তৃণমূল নেতার বাড়িতে হামলা চলার ঘটনায় পুলিশ এসে পৌঁছয়৷ পরে ওই নেতাকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয়৷ কিন্তু তারপরেই পুলিশ এলাকা ছেড়ে চলে যায় বলে অভিযোগ৷ তৃণমূলের দাবি, বিজেপির এজেন্টের আঙুল কাটা যায়নি৷ আঘাত লেগেছে শুধু৷