জম্মু: ১৪ ফেব্রুয়ারি। ভারতের ইতিহাসে ‘ব্ল্যাক ডে’। একবছর আগে এইদিনেই জঙ্গি হামলায় মৃত্যু হয়েছিল ৪০ ভারতীয় জওয়ানের। শুক্রবার সারা ভারত যখন শহিদ সেনাদের স্মরণে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পন করছে তখন ফের সীমান্তে গুলি চালাল পাকিস্তান।

শুক্রবার জম্মু কাশ্মীরের পুঞ্চ সেক্টরে এই গুলি চালানোর ঘটনা ঘটছে। পাকিস্তানের ছোঁড়া এই গুলিতে মৃত্যু হয়েছে এক গ্রামবাসীর। ভারতীয় সেনার তরফে জানানো হয়েছে, বিনা প্ররোচনায় শেলিং করতে শুরু করে পাক বাহিনী। শাহপুর এবং কেরনী সেক্টরে এই শেলিং-এর ঘটনা ঘটে। আর্মির তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘটনার উপযুক্ত জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

অন্যদিকে বৃহস্পতিবার পুঞ্চ জেলায় নিরাপত্তা বাহিনী সন্ত্রাসী বাহিনীর একটি আস্তানায় হানা দেয় এবং গোলা বারুদ উদ্ধার করে। জানা গিয়েছে, পুলিশ ৩৯ রোমিও ফোর্সকে সঙ্গে নিয়ে পুঞ্চের কুনাইয়ানে কর্ডোন অ্যান্ড সার্চ অভিযান শুরু করে এবং সন্ত্রাসীদের আস্তানাতে হানা দেয়।

যে অস্ত্র গুলি উদ্ধার হয়েছে তাঁর মধ্যে রয়েছে, একটি একে ৭৪ রাইফেল, একটি চাইনিজ পিস্তল এবং একটি পিস্তলের ম্যাগাজিন। ঘটনায় পুঞ্চ সেক্টরের একটি থানাতেও এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

আরও পড়ুন – পুলওয়ামা: ফোনেই বিস্ফোরণের শব্দ শুনেছিলেন স্ত্রী, তারপরই সব শেষ

উল্লেখ্য, শুক্রবার পুলওয়ামায় বর্বরোচিত জঙ্গি হামলার এক বছর পূর্ণ হল। দেশের অন্যতম কালো দিনের একটা বছর পূর্ণ হল। গত বছর ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় সন্ত্রাসবাদী হামলায় শহিদ হন ৪০ সিআরপিএফ জওয়ান। জম্মু-কাশ্মীরের রাজধানী শ্রীনগর থেকে প্রায় ২০ কিলোমিটার দূরে পুলওয়ামায় সেনা কনভয়ে হামলা চালায় জঙ্গিরা। সিআরপিএফের প্রায় ৭৮টি গাড়ি লক্ষ্য করে এই হামলা চালানো হয়।

নিহতদের স্মরণে শুক্রবার শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের টুইট, ‘২০১৯ সালে পুলওয়ামায় যাঁরা শহিদ হয়েছিলেন, তাঁদের স্মরণ করছি। ভারত তাঁদের ত্যাগ ভুলবে না। সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে আমাদের এই লড়াই চলবে।’