কলকাতা: সম্প্রতি রাজ্যে যে ভাবে সাম্প্রদায়িক বিদ্বেষ ও বিভাজনের পরিবেশের তৈরী হচ্ছে তারই বিরোধিতা করে নাগরিক-সভার ডাক দিয়েছেন বিশিষ্ট জনেদের একাংশ।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রবীন্দ্রসদনে সেই সভা হওয়ার কথা ছিল কিন্তু রবীন্দ্রসদন না পাওয়ায় সভার স্থল পরিবর্তন করা হয়েছে ৷ ঠিক হয়েছে এদিন সন্ধ্যায় ওই সভা হবে তপন থিয়েটারে৷

ইতিমধ্যেই শঙ্খ ঘোষ, সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, অপর্ণা সেন, নবনীতা দেবসেন, রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত, বিভাস চক্রবর্তী, চন্দন সেনের মতো ব্যক্তিত্বরা রাজ্যে বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আশংকা প্রকাশ করেছেন৷

বিশেষত রাজ্যে নির্বাচন পরবর্তী হিংসা যেভাবে ছড়াচ্ছে তা আটকাতেই এই নাগরিক সভার আয়োজন৷ ‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ নয়’ শীর্ষক বিবৃতিতে এনারা জানিয়েছেন, লোকসভা নির্বাচন পরবর্তী অধ্যায়ে রাজ্যে প্রায় রোজ অশান্তি হচ্ছে।

এর আগেও রাজ্যে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির জেরে পথে নেমেছিলেন বাংলার বুদ্ধিজীবীরা। বাম জমানায় সিঙ্গুর-নন্দীগ্রাম পর্বে বুদ্ধিজীবীদের আন্দোলন ও মহামিছিলের কথা সকলেরই জানা। যার জেরে রাজ্যে পালাবদল বলে মনে করেন অনেকেই৷ তারপর কেটে গিয়েছে বেশ কয়েকটা বছর৷

সেই সময়ের ‘পরিবর্তনপন্থী’ মধ্যে একাংশ যেমন সরকার ঘনিষ্ঠ এবং পেয়েছেন নানা সরকারি পদ। অন্য অংশ কিন্তু এই পরিস্থিতিতে চুপ থাকতে পারছেন না৷ সমাজের বিশিষ্টজনেদের এভাবে একত্র হওয়ায় শাসক দলের অস্বস্তি বাড়ছে বলেই মনে করেছে রাজনৈতিকমহল।