স্টাফ রিপোর্টার, জলপাইগুড়ি: প্রাকৃতিক দুর্যোগে দমকল ও সিভিল ডিফেন্সের আগেই পৌঁছে যায় পুলিশ। কিন্তু সাহায্যের ইচ্ছে থাকলেও পুলিশের কর্মীরা সাহায্য করতে পারে না। তাই এবার জেলা পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে থানায় সিভিক ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার কাজ শুরু করা হল।

মানুষ জলে ডুবে যাচ্ছে কিংবা প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় মানুষকে উদ্ধার করতে অনেকেই এগিয়ে আসে না। পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। অথবা দমকল বা সিভিল ডিফেন্সের আশায় থাকে অনেকে। তবে এবার নতুন পদক্ষেপ। জেলার থানাতে থাকা সিভিক ভলান্টিয়ারদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাজবাড়ি পুকুরে চলল প্রশিক্ষণ। জলের থেকে সাধারণ মানুষকে কিভাবে বাঁচাতে হবে সেই প্রশিক্ষণ দিলেন পুলিশ আধিকারিকেরাই।

শুধু তাই নয় স্পীড বোর্ড কিভাবে চালাতে হয় সেই প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়। জেলার প্রত্যেক থানা থেকে বেছে বেছে সিভিক ভলেনন্টিয়ার দিয়ে একটি স্পেশাল দল তৈরি করা হয়। মোট ৪৭ জনের সিভিক ভলেনন্টিয়ার দলটি জেলার বিভিন্ন থানায় থাকবেন৷ ২১ দিনের প্রশিক্ষণ হবে।

তারাই প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় উপস্থিত হয়ে উদ্ধার কাজ চালাবেন। এদিন রাজবাড়ি পুকুরে চলল তাদেরকে নিয়ে মহড়া। রীতিমত হাতে কলমে সিভিক ভলেনন্টিয়ারদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়৷ যাতে তারা উদ্ধার কাজের সময় কোন রকম সমস্যায় না পড়েন।

সিভিক ভলানন্টিয়ার অজিত রায় বললেন, ‘‘তিন তারিখ থেকে আমাদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ চলছে। বন্যা সহ অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগ হলে কি করব সেই বিষয়ে আজকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হল। এই প্রশিক্ষণ আমাদের অনেকটাই কাজে লাগবে।’’

সাব ইন্সপেক্টর উদয় বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সিভিক ভলানন্টিয়ারদের ট্রেনিং দেওয়া হচ্ছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় এরাই কাজ করবে। খুব ভালোভাবে প্রশিক্ষণ দিচ্ছেন তারা। জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে প্রশিক্ষণটি চলছে।