স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: শীতের মরশুম শুরু হয়ে গিয়েছে, তবুও রাজ্য থেকে এখনও বিদায় নিল না ডেঙ্গু। এই বছর ডেঙ্গুর জেরে কার্যত নাস্তানাবুদ অবস্থা রাজ্যবাসীর। কলকাতা ছাড়াও শহরতলির বিভিন্ন জেলাতেও এবার থাবা বসিয়েছে ডেঙ্গু। ডেঙ্গুর ফলে হুহু করে রাজ্য এবং বাংলার বিভিন্ন জেলাতেও বেড়েছে মৃত্যুর মতো ঘটনা। আর এই নিয়ে বিভিন্ন পৌরসভাগুলির উদাসীন মনভাবকে দায়ী করেছে সাধারণ মানুষ।

ডেঙ্গু প্রতিরোধে উপযুক্ত ব্যবস্থা না নেওয়ায় রাজ্যে মারণ ব্যাধির মতো আকার ধারন করেছে এই সর্বনাশা ডেঙ্গু।
এদিকে একই কারণে ডেঙ্গু প্রতিরোধের উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না বলে, অভিযোগ তুলল পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুকের পৌর নাগরিক সমিতি। জানা গিয়েছে, ডেঙ্গু প্রতিরোধের প্রতিবাদে তমলুক পৌর নাগরিক সমিতির পক্ষ থেকে এদিন পৌরসভা ও জেলা স্বাস্থ্য আধিকারিকের দফতরের সামনে অবস্থান বিক্ষোভে সামিল হন তাঁরা।

শুধু তাই নয়, ‘সিএমওএইচ’ এর কাছে দাবী করা হয় ডেঙ্গু নিয়ে জেলার সর্বত্র উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার। এছাড়াও, এলাকায় সচেতনতা শিবির করা, আক্রান্তদের অতিদ্রুত উপযুক্ত চিকিৎসা ব্যবস্থা করা এবং আক্রান্তের সংখ্যা কমানোর জন্য তথ্য গোপন করার চক্রান্ত বন্ধ করতে হবে বলে জানিয়েছেন তাঁরা।পাশাপাশি নিয়মিত শহরের ড্রেনগুলি পরিস্কার করা বা মশা মারার তেল স্প্রে করা, ব্লিচিং ছড়ানো, আগাছা পরিস্কার করা, ড্রেনে গাপ্পি মাছ ছাড়ার দাবীতে সোচ্চার হন তাঁরা৷এদিনের বিক্ষোভ ডেপুটেশন অবস্থানে নেতৃত্ব দেন সভাপতি রঞ্জিত জানা, যুগ্ম সম্পাদক সুমিত রাউৎ, লেখা রায় প্রমুখব্যক্তিত্ব। এছাড়াও এই সভায় বক্তব্য রাখেন সভাপতি সম্পাদক রাইকিংকর বর্মন, মানিক মাইতি, মইদুল বক্স প্রমুখ। সভা পরিচালনার দায়িত্বে ছিলেন গুরুপ্রসাদ জানা।