সিগারেট খেলে হতে পারে ফুসফুসে ক্যান্সার, এ কথা বেশ কিছু ব্র্যান্ডের সিগারেটের প্যাকেটেই লেখা থাকে। এই অবস্থায় একদল গবেষক বলছেন, ক্যান্সার রুখতে চাইলে বেশি বেশি সিগারেট খান! কিন্তু, সরাসরি সিগারেট খাওয়ার কথা বলেননি গবেষকরা, তবে পরোক্ষভাবে তামাক জাতীয় খাবার গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন তারা। ই-লাইফ নামের এক জার্নালে প্রকাশিত এক আর্টিকেলে এইপরামর্শ দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার গবেষকরা। তাদের কথায়, ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে একটি শক্তিশালী অস্ত্র হতে পারে তামাক! ওই গবেষণায় নেতৃত্ব দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার গবেষক মার্ক হুলেট। তার দাবি, ক্যান্সারের সবচেয়ে বড় শত্রু হলো তামাক। আর সেই কারণে ক্যান্সার রুখতে আরও বেশি করে তামাক জাতীয় দ্রব্য খাওয়া উচিত। হুলেটের জানিয়েছেন, তামাক খেলে ক্যান্সারের বিস্তার থমকে যায়। কারণ, তামাকের মধ্যে রয়েছে ক্যান্সাররোধী একটি উপাদান, এনএডি-1। আর ওই এনএডি-1-ই ক্যান্সার আক্রান্ত কোষের ছড়িয়ে পড়া রুখে দেয়। ই-লাইফে প্রকাশিত আর্টিকেলে বলা হয়েছে, তামাকের এনএডি-1 ক্যান্সার আক্রান্ত কোষ খুঁজে নিয়ে তাকে ধ্বংস করে দেয়। আর সেটা করতে গিয়ে সুস্থ কোষগুলোকে সুস্থ রেখেই যাবতীয় কাজ করে। উল্লেখ্য, বিশ্ববিখ্যাত প্রায় সব গবেষকদের মতে, ধুমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। এতে মৃত্যু ঘটায়। কারণ, সিগারেটে মেশানো যৌগের বেশিরভাগই ক্ষতিকর।