ক্রাইস্টচার্চ: নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে অন্যতম নারকীয় হত্যাকাণ্ড৷ ক্রাইস্টচার্চে বন্দুকবাজের হামলায় স্তব্ধ দেশের ক্রীড়াক্ষেত্র৷ এই ঘটনার পর আন্তর্জাতিক থেকে প্রথমশ্রেণির ক্রিকেট ম্যাচ বাতিল সিদ্ধান্ত উদ্যোক্তাদের৷

শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে প্রার্থনার সময় বন্দুকবাজের হামলায় নিহত হয়েছেন ৪৯ জন৷ আহত আরও ২০ জন৷ ঘটনার তীব্র নিন্দা করে ‘জঙ্গি হামলা’ অ্যাখ্যা দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আর্ডেন৷ অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গিয়েছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা৷ নামজা পড়তে ওই মসজিদে ঢুকছিলেন বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা৷ কিন্তু নিরাপত্তারক্ষীদের নির্দেশ বাস থেকে নামেননি বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়রা৷

ক্রিকেটাদরে দ্রুত মসজিদের পাশে হেগলে ওভাল পার্কের মধ্যে দিয়ে নিরাপদে স্টেডিয়ামের মধ্যে নিয়ে যাওয়া হয়৷ ক্রিকেটাররা নিরাপদে থাকলেও ঘটনার ঘণ্টাখানেকের মধ্যে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডে নিউজিল্যান্ড সফল বাতিল করে৷ অর্থাৎ শনিবার থেকে ক্রাইস্টচার্চে হেগলে ওভালে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ টেস্ট ম্যাচ বাতিল হয়ে যায়৷ ফলে দেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট দল৷

শুধু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচই নয় বাতিল হয় নিউজিল্যান্ডের প্রথমশ্রেণির ক্রিকেট ম্যাচও৷ বাতিল করা হয় ডুনেডিনে সুপার রাগবি ম্যাচও৷ ওয়েলিংটনে ঘরোয়া ক্রিকেট টুর্নামেন্ট প্লাকেট শিল্ড কম্পিটিশনের ফাইনাল রাউন্ডের বেশ কয়েকটি ম্যাচও বাতিল হয়৷ নিউজিল্যান্ড জাতীয় দলের দুই ক্রিকেটার মার্টিন গাপ্তিল ও লুকি ফার্গুসন অকল্যান্ডের হয়ে প্রথমশ্রেণির ম্যাচ খেলেন৷ ডুনেডিনে ওটাগোর বিরুদ্ধেও গাপ্তিল-ফার্গুসনদের ম্যাচও বাতিল করে দেওয়া হয়৷

অকল্যান্ড দলের হাই পারফরম্যান্স ম্যানেজার সাইমন ইন্সলে জানান, ‘গাপ্তিল ও ফার্গুসন দু’জনেই ডুনেডিনে খেলতে যাওয়ার ব্যাপারে ব্যক্তিগতভাবে স্বাচ্ছন্দ নয়৷ তারা পরিবারকে নিয়ে চিন্তিত৷ আমি ওদের ব্যাপারও বুঝতে পারছি৷ কারণ পরিবার সবার আগে৷’