ঢাকা: নিরাপত্তাজনিত কারণে পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলা নিয়ে যখন দোটানায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, তখন বাংলাদেশের মাটিতে দাঁড়িয়েই পাকিস্তানকে বিশ্বের সব থেকে নিরাপদ জায়গা আখ্যা দিলেন ক্রিস গেইল। সন্ত্রাসকবলিত পাকিস্তানকে যখন সারা বিশ্ব খেলাধুলার জন্য নিরাপদ নয় বলে বিবেচনা করে, তখন ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তির উলটপুরাণে হতবাক ক্রিকেটবিশ্ব। একমাত্র পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড ছাড়া গেইলের এমন মন্তব্যে আর কাউকেই খুশি দেখাচ্ছে না।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়র লিগে খেলার সুবাদে গেইল এই মুহূর্তে বাংলাদেশে হয়েছেন। ঢাকায় সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন যে, পাকিস্তান ক্রিকেটারদের জন্য রাষ্ট্রপতি পর্যায়ের নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। সুতরাং পাকিস্তানই এই মুহূর্তে বিশ্বের সবথেকে নিরাপদ জায়গা।

গেইলের কথায়, ‘পাকিস্তান এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম নিরাপদ জায়গা। ওরা বলছে আপনি পাকিস্তানে গেলে রাষ্ট্রপতি পর্যায়ের নিরাপত্তা পাবেন। সুতরাং আপনি নিশ্চিত ভাবেই সঠিক জায়গাতেই থাকবেন। আমার মনে হয় বাংলাদেশেও আমরা সঠিক জায়গাতেই রয়েছি, তাই না?’

গেইলের এমন মন্তব্য ক্রিকেটবিশ্বকে কতটা উদ্দীপ্ত করবে তা নিয়ে সংশয় থেকেই যায়। আপাতত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড টেস্ট সিরিজ খেলতে পাকিস্তানে দল পাঠাবে কিনা সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে আগামী রবিবার। প্রাথমিকভাবে বিসিবির তরফে দুই টেস্ট সিরিজের একটি পাকিস্তানের অন্যটি বাংলাদেশে খেলার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল পিসিবির কাছে। তবে সেই প্রস্তাব পাক বোর্ড পত্রপাঠ নাকচ করে দিয়েছে। তাদের দাবি সফরকারী দলকে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে হবে পাক দলের বিরুদ্ধে।

ক’দিন আগেই শ্রীলঙ্কা প্রথম আন্তর্জাতিক দল হিসেবে দীর্ঘ এক দশক পর টেস্ট সিরিজ খেলতে গিয়েছিল পাকিস্তানের। তার আগে সীমিত ওভারের সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় সারির দল পাঠিয়েছিল পাক ভূ-খণ্ডে। দু’টি সিরিজই নিরাপদে সম্পন্ন হয়েছে। পিসিবি আসন্ন পাকিস্তান সুপার লিগ দেশের মাটিতেই আয়োজনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের তরফে পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে।