সেন্ট লুসিয়া: ঊনচল্লিশে এসে সিরিজে হাঁকালেন ৩৯টি ছক্কা। ১৩৪.১৭ স্ট্রাইক রেটে চার ম্যাচে রান করলেন ৪২৪। চতুর্থ ওয়ান ডে’তে দল হারলেও তাঁর ব্যাট থেকে এসেছিল বিস্ফোরক ১৬২ রানের ইনিংস। ঘরের মাঠে শেষ ম্যাচে ক্যারিবিয়ান ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ান ডে ক্রিকেটে দ্রুততম অর্ধশতরান এল তাঁর ব্যাট থেকে। বিশ্বকাপের পরই বানপ্রস্থে যাবেন। তাই খাতায়-কলমে ঘরের মাঠে অন্তিম ওয়ান ডে সিরিজ আক্ষরিক অর্থে যেন ‘ফেয়ারি টেল’ হয়ে রইল ক্রিস্টোফার হেনরি গেইলের জন্য।

মারকাটারি দেড়শত রান করে দিনদুয়েক আগে বিশ্বকাপের পর অবসর ভেঙে ফিরে আসার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। সিরিজের শেষ ম্যাচে আরও একবার তাঁর বিধ্বংসী ব্যাটিং যেন অনুরাগীদের হৃদয়ে উসকে দিল সেই জল্পনা। ওসানে থমাসের পাঁচ উইকেট, সঙ্গে গেইলের ব্যাটিং তান্ডবে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ অমিমাংসিত ভাবে শেষ করল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বিশ্বকাপের আগে যা ‘পাওয়ার বুস্টার’ হিসেবে কাজ করবে ক্যারিবিয়ান দলের জন্য।

আরও পড়ুন: জাতীয় টি-২০ মূলপর্বে মনোজ-ঋদ্ধিরা

রুটদের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজে দুর্ধর্ষ ফর্মে ছিলেন ক্যারিবিয়ান বোলাররা। কিন্তু ওয়ান ডে সিরিজে রানের ফুলঝুরির মাঝে ব্যাকফুটে ছিলেন দু’দলের বোলাররাই। অন্তিম ওয়ান ডে-তে জ্বলে উঠে ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে শনিবার ইংরেজদের সর্বনিম্ন রানের ইনিংস খেলতে বাধ্য করলেন হোল্ডার-থমাসরা। ৫.১ ওভারে একুশ রানে ৫ উইকেট নিয়ে এদিন ইংল্যান্ড ব্যাটিংয়ের মেরুদন্ড ভাঙার কাজ করেন ওসানে থমাস। তাঁকে যোগ্য সহযোগীতা করে ইংরেজদের এদিন মাত্র ১১৩ রানে গুটিয়ে দেন ক্যারিবিয়ান বোলাররা।

আরও পড়ুন: ধোনি-যাদবের দুরন্ত ব্যাটিংয়ে মসৃণ জয় ভারতের

স্বল্প রান তাড়া করতে নেমে দানবীয় ইনিংস খেলেন ক্যারিবিয়ান ওপেনার গেইল। মাত্র এক রানে আরেক ওপেনার ক্যাম্পবেল যখন আউট হন, ৩.২ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের রান তখন ৪০। ওকস-উডদের নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলা করে মাত্র ১৯ বলে অর্ধশতরান পূর্ণ করেন তারকা ব্যাটসম্যান। সেন্ট লুসিয়ায় তান্ডব চালানোর পর ২৭ বলে ৭৭ রান করে গেইল যখন প্যাভিলিয়নে ফেরেন, দল তখন জয়ের দোরগোড়ায়।

আরও পড়ুন: তিন বিশ্বকাপ জয়ের দিন লেখা জার্সিই তাতাবে কোহলিদের

এরপর ১৩ রানে শাই হোপ ফিরে গেলেও ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয় আটকানোর কোনও অবকাশই এদিন ছিল না। শেষ অবধি ডারেন ব্র্যাভো-শিমরন হেটমেয়ার জুটি দলকে পৌঁছে দেন কাঙ্খিত লক্ষ্যে। মাত্র ১২.১ ওভারে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বল বাকির নিরীখে ইংল্যান্ডের এই হার ওয়ান ডে-তে সর্বাধিক ব্যবধানে হার। ২২৭ বল বাকি থাকতেই এদিন লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছে যায় ক্যারিবিয়ানরা। গেইলদের এই জয়ের ফলে ২-২ ব্যবধানে শেষ হল সিরিজ। সেন্ট জর্জে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের তৃতীয় ম্যাচটি ভেস্তে যায়।