কলকাতা : চিটফান্ড নিয়ে সেবি ও সিবিআইকে চটজলদি সিদ্ধান্তে আসার আবেদন জানাল অল বেঙ্গল চিটফান্ড ডিপোজিটার্স অ্যান্ড এজেন্টস ফোরাম। তাদের প্রধানত  দাবি আগামী ১ মাসের মধ্যেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে হবে তাদের। সেই দাবিতেই বুধবার এক মিছিলের ডাক দেয় তারা। ফোরামের পক্ষ থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে উত্তর না পেলে তারা আন্দোলনে নামবে।

গত ২০১৩ সালে এ রাজ্যে শুরু হয় চিটফান্ড বিতর্ক। ঘটনার মূল হোতা সুদীপ্ত সেন পুলিশের হাতে ধরা পড়ার পর থেকে ইডি’র দফতরে ডাক পড়ে রাজ্যের বিভিন্ন নেতা থেকে অনেক আমলার। সারদা চিটফান্ড সংস্থার কাছে টাকা জমা সর্বশান্ত হয়েছেন রাজ্যের বহু মানুষ। রাজ্য ও রাজ্যের বাইরে মিলিয়ে লুট হয়েছে প্রায় তিন লক্ষ কোটি টাকা।  রাজ্য সরকারের তরফে কিছু টাকা ফেরত দেওয়া হলেও এখনও অনেকেই সেই সমস্যায় ভুগছেন। বেশ সমস্যায় আছেন চিটফান্ড সংস্থার এজেন্টরাও। গত ১০ মার্চ সেবি নির্দেশ দিয়েছিল ওইসব মালিকদের নির্দেশ দিয়েছিল ১৫ শতাংশ সুদ সমেত আমানতকারিদের টাকা ফেরত দেওয়ার। তবে নির্দিষ্ট কোন তারিখ না দেওয়ায় সেই সমস্যার এখনও কোন হাল হয়নি। এইসব সমস্যারই হাল চায় অল বেঙ্গল চিটফান্ড ডিপোজিটার্স অ্যান্ড এজেন্টস ফোরাম।

তাদের দাবি

১) আগামী ১৫/০৯/১৬ তারিখের মধ্যে সিবিআই/সেবিকে চূড়ান্ত রিপোর্ট সুপ্রিম কোর্টে পেশ কোর্টে হবে

২)  সিবিআই/সেবিকে অনতিবিলম্বে আমানতকারি ও এজেন্টদের টাকা ফেরত দেওয়ার রূপরেখা প্রকাশ কোর্টে হবে।

৩) স্বাধীনত্তর কালে সবথেকে বড় কেলেঙ্কারি চিটফান্ডের সঙ্গে জড়িত সমস্ত কোম্পানির মালিক, মন্ত্রী , আমলাদের নাম প্রকাশ করতে হবে।

৪) ১৫ শতাংশ সুদ সহ সেবি যে টাকা ফেরতের নির্দেশ দিয়েছিল তার সময়সীমা প্রকাশ করতে হবে।

৫) সমস্ত কোম্পানির স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোক করে শ্বেতপত্র প্রকাশ করতে হবে।