নয়াদিল্লি:  দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এবার পাসপোর্ট নিয়ে নতুন উদ্যোগ নিতে চলেছে মোদী সরকার। চিপ দেওয়া ই-পাসপোর্ট আনার ভাবনা চিন্তা করছে সরকার। সোমবার পাসপোর্ট সেবা দিবসের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এমনটাই জানালেন নয়া বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

এদিন তিনি জানিয়েছেন, সুরক্ষা আরও বাড়াতে নতুন প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে পাসপোর্টে। পাসপোর্ট তৈরির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। তাতে লাগানো থাকবে চিপ।

এছাড়া, প্রতিটি লোকসভা কেন্দ্রে POPSK বা পোস্ট অফিস পাসপোর্ট সেবা কেন্দ্র চালু করার কথাও বলেন তিনি। মন্ত্রী জানিয়েছেন যাতে দ্রুত সেইসব পাসপোর্ট সেবা কেন্দ্র তৈরি করা যায়, সেই ব্যবস্থা করছে বিদেশ মন্ত্রক ও যোগাযোগ মন্ত্রক। ২০১৭ থেকে ৪০০ র বেশি POPSK তৈরি করতে সাহায্য করার জন্য যোগাযোগ মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। বর্তমানে দেশে মোট ৫০৫ টি POPSK রয়েছে, যার মধ্যে ৯৩ টি কার্যকর।

এখন আর পাসপোর্টের আবেদন জমা দিতে দূরে যেতে হয় না বলেও জানিয়েছেন জয়শঙ্কর। তিনি আরও উল্লেখ করেন, গত বছর পাসপোর্ট সেবা দিবসে দুটি নয়া স্কিম আনা হয়। ডিজিটাল ইন্ডিয়ার আওতায় চালু হয় এম পাসপোর্ট মোবাইল অ্যাপ। এছাড়া যে কোনও জায়গা থেকে পাসপোর্টের আবেদন করার উদ্যোগ ও নেওয়া হয়। জয়শঙ্কর বলেন, এই দুটি স্কিম থেকে বোঝা যায়, প্রযুক্তির ব্যবহারে সব কিছু কত সহজ হোয়ে যেতে পারে। ঠিক সময় মত যাতে পাসপোর্ট পৌঁছে যায় তার জন্য পুলিশের বিশেষ ভূমিকা আছে বলে উল্লেখ করেন তিনি। তিনি জানান, পুলিশ ভেরিফিকশন এর সময় ২০১৮ তে কমে ১৯ দিন হোয়েছে, যা আগামী দিনে আরও কমানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।