নয়াদিল্লি: চিনের কাছ থেকে চাঁদা নেওয়ার ব্যাপারে কংগ্রেস এবং বিজেপির একে অপরের দিকে কাদা ছোড়াছুড়ি যেন থামতেই চাইছে না। এবার কংগ্রেস অভিযোগ তুলল খোদ পিএম কেয়ার্সে চিনা সংস্থার কাছ থেকে চাঁদা এসেছে বলে। এমন অভিযোগ তুলে প্রধানমন্ত্রীকে খোঁচা মারতে দেখা গিয়েছে কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিংভিকে।

অভিষেক মনু সিংভি প্রশ্ন তুলেছেন, যখন চিনের সঙ্গে সংঘাতে যেতে হচ্ছে তখন হুয়ায়ের মতো সংস্থার কাছ থেকে প্রধানমন্ত্রী ৭ কোটি টাকা নিয়েছেন কিনা তার জবাব কি দেবেন ? ওই সংস্থার সঙ্গে চিনের সেনাল কোনও যোগাযোগ আছে কি? চিনা সংস্থা টিকটক কি ৩০ কোটি টাকা দিয়েছে পিএম কেয়ার্সে? পেটিএম যাদের মালিকানার ৩৮ শতাংশ রয়েছে চিনের কাছে তারা কি ১০০ কোটি টাকা দিয়েছে?

চিনের শাওমি কি ১০ কোটি টাকা এবং অপ্পো এক কোটি টাকা দিয়েছে? লাদাখের চিনের অনুপ্রবেশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীকে বারবার আক্রমণ করতে দেখা গিয়েছে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীকে। প্রধানমন্ত্রীকে ‘সারেন্ডার মোদী’ বলেও কটাক্ষ করেছেন রাজীব গান্ধীর পুত্র। তার জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ চ্যালেঞ্জ হিসেবে জানিয়ে দিয়েছেন, সংসদে অধিবেশন বসবে এবং তখন এ নিয়ে বিতর্ক হবে।

পাশাপাশি ওই বিতর্কে তিনি‌ ভয় পান না বোঝাতে ১৯৬২ সাল থেকে কি হয়েছে তারও হিসেব চাইবেন বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন। এদিকে আবার বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছে, চিন এবং চিনের দূতাবাস কংগ্রেসের থিংক ট্যাংক রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনে চাঁদা দিয়েছে।

তারপরে এবার কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হলো চিনা সংস্থা হুয়ায়েই করোনা মোকাবিলার জন্য গঠিত পিএম কেয়ারস ফান্ডে ৭ কোটি টাকা দিয়েছে।কিন্তু সে ক্ষেত্রে চিনের নাম উল্লেখ করা হচ্ছে না কেন? যদিও চিনের সংস্থা হুয়ায়েই ফাইভ-জি ট্রায়ালে অংশ নেওয়া নিয়ে আপত্তি তুলেছে আরএসএস অনুমোদিত সংস্থা স্বদেশি জাগরণ মঞ্চ।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV