বেজিং: ছেলের প্রেমিকাদের হাত থেকে বাঁচিয়ে ছেলেকে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে পুলিশের কনভয় ডাকলেন মা। চিনের ঘটনা। একটা-আধ’টা নয় ছেলের ১৭ টা প্রেমিকা। তাই কোনোক্রমে বাঁচিয়ে বাড়ি ফিরিয়ে আনতে হয়েছে ছেলেকে।

জানা গিয়েছে, গত ২৪ মার্চ গাড়ি দুর্ঘটনার পর হাসপাতালে ভর্তি হন ইউয়ান নামের এক ব্যক্তি। তারপর থেকেই একের পর এক প্রেমিকা হাসপাতালে দেখা করতে গিয়েছেন ওই ব্যক্তির সঙ্গে। এই ঘটনাতেই প্রচণ্ড চটে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার সময় ছেলের জন্য পুলিশি কনভয়ের ব্যবস্থা করলেন মা।

জানা গিয়েছে ইউয়ানের ১৭ জন প্রেমিকা। প্রত্যেকেরই বয়স ২০ থেকে ৪০ এর মধ্যে। তবে ইউয়ান নিজের জীবনে বিয়ে করেছেন একবারই। তবে সেই বিয়ে টেকেনি ইউয়ানের। এমনকি বিয়ে ভেঙে যাওয়ার জন্য ইউয়ান তাঁর প্রথম স্ত্রীকে খোরপোষ হিসেবে দেন মাসিক ৪৫ হাজার টাকা। প্রেমিকাদের চোখ থেকে ছেলেকে বাঁচাতে শেষে পুলিশ ডাকায় ইতিমধ্যেই আলোচনায় উঠে এসেছে ইউয়ানের নাম।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।