নয়াদিল্লি: শীতের কাঁপুনি সহ্য করা কঠিন। কিন্তু তাই বলে এলাকার দখলদারি থেকে সরে আসা সম্ভব নয়। তাই, প্রবল ঠাণ্ডাতেও লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে চিনের সেনাবাহিনী। কিন্তু অতদিন ধরে থাকার ক্ষমতা নেই। তাই, রোটেশন পদ্ধতিতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করেছে চিন।

কিন্তু, ভারতীয় সেনাবাহিনী পার্বত্য অঞ্চলে লড়াই করতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। তাই পরিস্থিতি কঠিন হলেও নিজেদের অবস্থানে অনড় ভারত। একই জায়গায় আরও দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় সেনা।

সরকারি সূত্রে জানানো হয়েছে, চিনাদের থেকেও বেশি সময় ধরে একই জায়গায় অবস্থান করবে ভারতীয় সেনা।

এদিকে, সীমান্ত নিয়ে চিনের সঙ্গে দ্বন্দ্ব ক্রমশ বাড়ছে। এবার নয়াদিল্লিকে চিন্তায় ফেলে নয়া কর্মকান্ড শুরু করতে চলেছে চিন। জানা গিয়েছে তিব্বতে ব্রহ্মপুত্র নদের ওপর বিশাল বাঁধ নির্মাণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে বেজিং। এটি মূলত জলবিদ্যুৎ প্রকল্প। তবে নিজেদের অংশে বাঁধ নির্মাণ করলেও ভারতের উদ্বেগ থাকছে , কারণ এই নদের উৎস তিব্বতে হলেও, অরুণাচল প্রদেশ, অসমের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়ে বাংলাদেশের ওপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে এটি।

ব্রহ্মপুত্র নদটি তিব্বত হয়ে ভারতে প্রবেশ করেছে। তাই তিব্বতে এই ব্রহ্মপুত্রের ওপর বাঁধ নির্মাণ করলে নদীর জল তার নিজস্ব গতিতে ভারতে ঢুকবে না। নদীর জল আটকেও দেওয়া হতে পারে। এর ফলে ভারতের যে রাজ্যগুলির ওপর দিয়ে ব্রহ্মপুত্র প্রবাহিত হয়েছে সেই রাজ্যগুলিতে জলের কষ্ট দেখা দিতে পারে। পাশাপাশি ব্রহ্মপুত্রের ওপর নির্মিত অরুণাচল প্রদেশের জলবিদ্যুৎ প্রকল্পে বিদ্যুৎ উৎপাদনেও সমস্যা দেখা দিতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

কার্বন উৎপাদনের পরিমাণ কমাতেই এই প্রজেক্টের সূচনা বলে চিনা বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। ২০৬০ সালের মধ্যে সেই প্রকল্প বাস্তবায়িত হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।