বেজিং: ফের বিতর্কিত দক্ষিণ চিন সাগরে চোখে পড়ল চিনের উপস্থিতি। দক্ষিণ চিন সাগরের দ্বীপের উপর উড়তে দেখা গেল চিনের J-11B ফাইটার জেট। বেজিং যে এই অঞ্চলে নিজেদের আধিপত্য কায়েম রাখতে চায়, সেটাই আরও একবার প্রমাণিত হল। চিনের ‘চায়না সেন্ট্রাল টেলিভিশন’-এর একটি ফুটেজে এই দৃশ্য দেখা গিয়েছে।

ওই অঞ্চলে যে চিন তাদের যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে, সেই অনুমান আগেই করা হয়েছিল। ইয়ংজিং আইল্যান্ডের কাছে চিনের হ্যাংগার রয়েছে বলে জানা গিয়েছিল। এই প্রথমবার সেটা হাতেনাতে ধরা পড়ল। চিনের ওই আইল্যান্ড ‘প্যারাসেল আইল্যান্ড’-এর একটি অংশ। আর ওই প্যারাসেল আইল্যান্ড নিজেদের বলে দাবি করে ভিয়েতনামও। প্যারাসেল আইল্যান্ডের চিনা নাম হল জিশা আইল্যান্ড।

দক্ষিণ চিন সাগরে যে বেজিং আরও বেশি করে অধিকার ফলাচ্ছে, সেটাই আরও একবার স্পষ্ট হয়ে গেল এই বোমারু বিমান ওড়ার দৃশ্যে। চিনের এয়ার ফোর্স কিভাবে সমুদ্রের মাঝে যুদ্ধের প্রস্তুতির বাড়াতে মহড়া করছে, সেই খবর প্রকাশ করতে গিয়েই ওই ফুটেজ দেখায় চিনের সংশ্লিষ্ট চ্যানেল।

ইয়ংজিং আইল্যান্ডের তিন কিলোমিটারের রানওয়ে দক্ষিণ চিন সাগরের বুকে যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। চিন প্রায় পুরো দক্ষিণ চিন সাগরটাই নিজেদের বলে দাবি করে। আর সেইসঙ্গে ভিয়েতনাম, ফিলিপিন্স, মালয়েশিয়া, ব্রুনেই ও তাইওয়ানও ওই অঞ্চলে নিজেদের অধিকার দাবি করে। নজরদারি চালানোর জন্য মাঝেমধ্যেই নেভি শিপ বা ফাইটার জেট পাঠায় আমেরিকা। গত মে মাসে দুটি চিনা J-10 ফাইটার জেটের মুখোমুখি হয় মার্কিন এয়ারক্রাফট।