বেজিং: সাম্প্রতিক পরিস্থিতিতে ভারত-পাকিস্তান দুই দেশই একে অপরকে পরমাণু বোমার হুমকি দিচ্ছে। আর এরই মধ্যে চিন বলল, ভারত ও পাকিস্তানকে পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে মনেই করে না তারা।

চিনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র লু কাং এক বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানান, চিন কখনই পারমাণবিক শক্তিধর দেশ হিসেবে ভারত ও পাকিস্তানকে স্বীকৃতি দেয়নি। এমনকী উত্তর কোরিয়াও পরমাণু শক্তিধর দেশ বলে মনে করে না চিন। এখনও তারা এই সিদ্ধান্তে কঠোর বলেও জানিয়েছে।

গত বছর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম ও উত্তর কোরিয়ার কিম-জং-উনের বৈঠকের পরও তা মানতে রাজি নয় চিন। চিনের ওই আধিকারিক বলেন, এই ব্যাপারে আমাদের অবস্থান কখনই পরিবর্তিত হয়নি। আগেও যা ছিল, এখনও তা আছে। উল্লেখ্য, ভিয়েতনামের হ্যানয়ে দ্বিতীয় শীর্ষ সম্মেলনে উত্তর কোরিয়ার তরফে নিউক্লিয়ার প্রসেসিং প্ল্যান্ট বন্ধ করার প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ায় আলোচনা ব্যর্থ হয়।

৪৮ সদস্যের পারমাণবিক সরবরাহকারী গোষ্ঠীতে ভারতের অন্তর্ভুক্তিতে প্রথম থেকে বাধা দিয়ে আসছে চিন। এই বাধা দেওয়ার কারণ হিসেবে চিনের যুক্তি পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তিতে এখনও স্বাক্ষর করেনি নয়াদিল্লি। ভারতের পর এনএসজি-র সদস্য হতে আবেদন জানায় পাকিস্তান।

সেইসময় একইভাবে চিন প্রস্তাব দিয়েছিল এনএসজি-র সদস্য হতে পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ চুক্তিতে সই করতে হবে। তবেই তারা এনএসজি-র সদস্যপদ পাবে।