বেজিং: ভারতের মানচিত্রে রাখা হয়েছিল কাশ্মীর ও অরুণাচল প্রদেশকে। সেকথা জানতে পেরেই একটি ওয়েবসাইট থেকে দ্রুত সেই ম্যাপ সরিয়ে নিল চিন।

বেজিংয়ে চলছে ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েতিভ’ বা বিআরআই-এর দ্বিতীয় সংস্করণের সম্মেলন। আর সেই BRI-এর ওয়েবসাইটেই ছিল ভারতের ওই ম্যাপ। ভারতের অংশ হিসেবেই ছিল অরুণাচলল প্রদেশ ও পাক অধিকৃত কাশ্মীর। কিন্তু এই দুই বিতর্কিত অঞ্চল নিয়ে চিনের যা অবস্থান, তা এই মানচিত্রে ভুল প্রমাণিত হচ্ছে। তাই এই ম্যাপ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

এই ম্যাপে BRI প্রজেক্টের অংশ হিসেবে ভারতকে দেখানো হয়েছে। কিন্তু আদতে নয়াদিল্লি, চিনের এই প্রজেক্টে অংশ নিতে অস্বীকার করেছে কারণ চিন-পাকিস্তান ইকনমিক করিডর অধিকৃত কাশ্মীরের উপর দিয়ে যাচ্ছে। ২০১৭-তে এই BRI-এর প্রথম সম্মেলন বাতিল করে দেয় ভারত। যদিও বেজিং প্রতিনিধি চেয়েছিল ভারতের কাছে।

চিন অরুণাচল প্রদেশকে চিনের অংশ বলে দাবি করে থাকে। আর অরুণাচলকে ভারতের অংশ হিসেবে দেখানো হয়েছে এমন হাজার হাজার ম্যাপ নষ্ট করে ফেলেছে চিন।

চিনের এমন কাজ নতুন নয়। গত বছর চিনের তৈরি গ্লোবেও দেখা গিয়েছিল বিকৃত মানচিত্র। দেখানো হয়েছিল কাশ্মীর ভারতের অংশ নয়৷ চিনে তৈরি গ্লোব রমরমিয়ে বিক্রি হচ্ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কানাডার বড় বড় বিপণীগুলিতে৷ কানাডারা এক অনাবাসী ভারতীয়ই প্রথম এই বিষয়টি প্রকাশ্যে আনে৷

এর আগে কাশ্মীর এবং অরুণাচল প্রদেশ দেশের বাইরে রেখে গ্লোব বানায় কানাডার একটি মাল্টিন্যাশানাল সংস্থা৷ আমাজনেও দেদারে বিক্রি হয় বিকৃত মানচিত্রের গ্লোব৷

কানাডার এই সংস্থাটি ভারতের মানচিত্র বিকৃত করে একটি গ্লোব তৈরি করে৷ সেই বিকৃত ম্যাপটিই দোকানে দেদারে বিক্রি হয়৷ ঘটনাটি ঘটেছে কানাডার কস্টকো স্টোরসে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ