বেজিং: চিনা অ্যাপ ব্যান করা নিয়ে ভারতের সমালোচনা করল লাল চিন। মঙ্গলবার সুরক্ষা কারণ দেখিয়ে ভারত ৪৩ টি চিনা অ্যাপ ব্যান করে। চিনের দাবি এই ভারতের পদক্ষেপে ওয়ার্ল্ড ট্রেড অর্গানাইজেশনের নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে।

মে মাসে লাদাখে ভারত ও চিনা বাহিনীর সংঘর্ষের পর থেকেই চিনা অ্যাপের ওপর এই নিয়ে চারবার সার্জিকাল স্ট্রাইক করল ভারত। এখন অবধি ভারতের তরফে কমপক্ষে ২৬৭ টি অ্যাপ ব্যান করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে।

ভারতীয় দূতাবাসের মুখপাত্র জি জি রং জানিয়েছেন, ‘চিনের সঙ্গে যুক্ত মোবাইল অ্যাপগুলিকে নিষিদ্ধ করার জন্য ভারত বারবার জাতীয় সুরক্ষার দোহাই দিচ্ছে, আমরা এর তীব্র বিরোধিতা করি।’ তিনি ভারতকে চাইনিজ অ্যাপের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে বলেছেন।

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহের মঙ্গলবার China Love, AliExpress সহ মোট ৪৩ টি অ্যাপ্লিকেশন ব্যান করে মোদী সরকার। এর মধ্যে বেশ কয়েকটা ছিল চিনা অ্যাপ। এই অ্যাপগুলির কয়েকটি প্লে স্টোরে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, এই অ্যাপগুলি ভারতের নিরাপত্তার জন্য সঠিক ছিল না। এমনকি ডেটা নিরাপত্তার দিক থেকেও অ্যাপে গলদ ছিল বলে জানানো হয়েছে।

Snack Video অ্যাপটিও অনেকটা টিকটকের মতো অ্যাপ। প্লে স্টোরে টপ লিস্টে ছিল সেটি। মাত্র অল্প কিছু সময়ে অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল এটি। এই অ্যাপটিকেও ব্যান করা হয়েছে।

নিষিদ্ধ অ্যাপের তালিকায় রয়েছে বিউটিফিকেশন অ্যাপস, লকার অ্যাপস, ক্লিনার অ্যাপস এবং বেশ কয়েকটি ক্যামেরা অ্যাপস। এর আগে ২৮ শে জুন, সরকার ৫৯ টি অ্যাপ্লিকেশন নিষিদ্ধ করেছিল, এর মধ্যে বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় অ্যাপ ছিল। এরপর ২ সেপ্টেম্বর ১১৮ টি অ্যাপ নিষিদ্ধ করা হয়। কেন্দ্রের বক্তব্য অনুযায়ী, দেশের অখণ্ডতার কথা মাথায় রেখে ওই অ্যাপগুলিকে ব্যান করা হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।