বেজিংঃ   অধিকৃত কাশ্মীরের উপর দিয়েই কার্যত তৈরি হচ্ছে চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর।  যা নিয়ে যথেষ্ট উদ্বিগ্ন ভারত।  একাধিকবার এই বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছে ভারত।  এই অবস্থায় চিনের পরামর্শ, চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর নিয়ে ভারতের কোনও ভয়ের কারণ নেই।  এই অর্থনৈতিক করিডর নিয়ে ভারত জানিয়েছিল যে, এটি ভারতের সার্বভৌমত্বে আঘাত লাগতে পারে।  যদিও, সম্মেলনের উদ্বোধনে চিনের প্রেসিডেন্ট সি জিনপিং বলেছেন, ‘ইকনমিক করিডর কোনও দেশের সার্বভৌমত্ব বা স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করবে না।  বরং এই রাস্তা তৈরি হবে শান্তির জন্য।’  সাম্প্রতিক সময়ে ওবিওআর-এর মতো প্রকল্প কীভাবে পরিকাঠামো উন্নয়ন, বাণিজ্য ও জনসংযোগে সাহায্য করেছে, সে কথাও বলেছেন তিনি।

চিনের বিদেশ দফতরের তরফে বলা হয়েছে, এই প্রকল্পের জন্য চিনা সরকারকে উষ্ণ অভিনন্দন জানিয়েছে বিশ্বের বেশিরভাগ রাষ্ট্র। পাশাপাশি বলা হয়েছে, পৃথিবীর সমস্ত শক্তির উচিত অন্য দেশের সার্বভৌমত্ব ও স্বাধিকারকে সম্মান করা।  তবে কাশ্মীর ইস্যুতে চিনের যা মানসিকতা ছিল, তাই রয়েছে।  কোনওভাবেই তা পরিবর্তন হয়নি।  এমনকি, আগামিদিনেও তা হবে না বলে চিনের তরফে জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে কাশ্মীর সমাধানের জন্যে চিন তৈরি বলে, বেজিংয়ে দাঁড়িয়ে ঘোষণা করেছিলেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ।  ফলে, চিনের এহেন বক্তব্য আর পাকিস্তানের বক্তব্য ঘিরে শুরু হয়েছে নানারকম জল্পনা।