বেজিং: ভারত-পাকিস্তানের সীমান্ত উত্তেজনা যত বাড়ছে, ঘোলা জলে মাছ ধরতে তত উদ্যোগী হচ্ছে চিন৷ পুলওয়ামা হামলার এক মাসও কাটেনি৷ পাকিস্তানের তরফ থেকে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘনের একাধিক ঘটনা ঘটেছে৷

বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার হানার পর একাধিকবার ভারতের আকাশ সীমায় দেখা দিয়েছে পাকিস্তানের কপ্টার৷ এমনকী বেশ কয়েকবার হামলার চেষ্টাও করা হয়েছে৷ বালাকোটের হামলার পরের দিনই পাকিস্তান হামলা চালায়, এই হামলায় ব্যবহার করা হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি ফাইটার জেট৷

তবে সূত্রের খবর, এরই মাঝে ফের হামলা চালাতে পারে পাকিস্তান৷ আর এবার হামলা চলবে চিনে তৈরি JF-17 ফাইটার জেট দিয়ে৷ যা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের F-16 ও ভারতের তেজসকে টেক্কা দিতে আপগ্রেড করা হয়েছে সম্প্রতি৷

উল্লেখ্য, পুলওয়ামা হামলার পর যেখানে বিশ্বের প্রায় সবকটি দেশ এই হামলার কড়া নিন্দা করে পাকিস্তানকে কটাক্ষ করেছে, সেখানে সমানে ইমরান সরকারকে পিছন থেকে সমর্থন জুগিয়েছে বেজিং৷ রাষ্ট্রসঙ্ঘের নিরাপত্তা পরিষদের এই স্থায়ী সদস্যের জন্য বারবার পাক মাটিকে ব্যবহার করে সন্ত্রাস চালানোর প্রসঙ্গ উঠলেও, তা চাপা পড়ে গিয়েছে৷

গ্লোবাল টাইমসে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চিন ও পাকিস্তান যৌথভাবে JF-17 থাণ্ডার সিরিজের জেটগুলির মানোন্নয়নে কাজ করছে৷ যা ভারতের বিরুদ্ধে ব্যবহার করা হবে বলে খবর৷ সেক্ষেত্রে পাকিস্তান সীমান্তে উত্তেজনা বাড়লে পাক তরফে হামলা চলুক বা চিনের সাহায্যে পাক হামলা হোক, সব ক্ষেত্রেই এই JF-17 ফাইটার জেট ব্যবহার করা হবে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন : দেশের মুসলিমরা যেন ভাড়াটিয়া: আজম খান

চিনে তৈরি এই ফাইটার জেটের মূল কারিগর ইয়াং ওয়েই জানান JF-17 জেটের আপগ্রেডেশনের কাজ শুরু হয়েছে৷ এই কর্মপদ্ধতিতে সাহায্য করছে পাকিস্তানও৷ মার্কিনী F-16 দিয়ে আপাতত হামলা চালাচ্ছে পাকিস্তান৷ তবে JF-17 ফাইটার জেটের কাজ শেষ হলেই তা হামলার কাজে ব্যবহার করা হবে৷

JF-17 ব্লক ৩ গ্রেডের এই ফাইটার জেট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি F-16 জেটের আপগ্রেড ভার্সন৷ যা টেক্কা দিতে পারে ভারতে তৈরি স্বল্প ওজনের কমব্যাট এয়ারক্রাফট তেজসকেও৷ পাশাপাশি, JF-17 পাল্লা দেবে দক্ষিণ কোরিয়ায় তৈরি FA-50 জেটকেও বলে দাবি করা হয়েছে৷