ইসলামাবাদ:  ক্রমশ শক্তিশালী হচ্ছে ভারত। বিশ্বের তাবড় তাবড় সমস্ত দেশের কাছ থেকে একের পর এক সমরাস্ত্র কিনে যাচ্ছে ভারতীয় সেনা। আর যা কিনা পাকিস্তানের কাছে ক্রমশ বুমেরাং হয়ে যাচ্ছে। হঠাত যুদ্ধ লাগলে আধুনিক সমরাস্ত্রে কখনই পাকিস্তান পেরে উঠবে না বলে ইতিমধ্যে জানিয়েছেন। আর তা নিয়ে আরও চাপ বাড়ছে ইসলামাবাদের। আর সবথেকে বড় ব্যাপার, ২০২০ সালের মধ্যে পাকিস্তানের বিমান বহরে অন্তত ১৯০টি যুদ্ধবিমান পরিবর্তনের প্রয়োজন রয়েছে। আর তাই নতুন বিমান কেনার জন্য পাকিস্তান এরইমধ্যে পরিকল্পনা নিয়ে এগুচ্ছ। পাকিস্তানের একজন শীর্ষ আধিকারিক স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে আলোচনা হচ্ছে। তবে বেশ কয়েকটি আধুনিক যুদ্ধবিমান কেনা হবে। তবে কোন দেশের কাছ থেকে তা নেওয়া হবে তা এখনও স্থিত হয়েনি বলেই জানিয়েছেন ওই আধিকারিক। সম্ভবত চিন থেকেই যুদ্ধবিমানগুলি পাকিস্তান নিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

কারণ, ইতিমধ্যে পাকিস্তানকে সামরিক দিক থেকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে চিন। আর সেলক্ষ্যে ইসলামাবাদকে সবরকম সাহায্য করছে বেজিং। মূলত ভারতকে উদ্বেগে রাখতে নানারকমভাবে ঘুঁটি সাজাচ্ছে বেজিং। আর সে কারণেই পাকিস্তানকে একাধিক যুদ্ধবিমান দিয়ে সাহায্য করতে পারে বলে জানা গিয়েছে।  যদিও একসঙ্গে ১৯০টি যুদ্ধবিমান পাকিস্তানকে দেবে না চিন।  ধীরে ধীরে তা দিতে পারে।