ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: সম্প্রতি লাদাখকে পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করেছে মোদী সরকার। লাদাখের মানুষের দীঘদিনের দাবি মেনেই এটা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তারপরই বিজেপি সরকারের এই উদ্যোগের প্রশংসা করে শিরোনামে আসেন লাদাখের সাংসদ জামিয়াং শেরিং নামগিয়াল। এবার চিনের আধিপত্যের জন্য সরাসরি কংগ্রেসের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুললেন তিনি।

তিনি মনে করেন, কংগ্রেস সরকারের প্রতিরক্ষা নীতির জন্য লাদাখকে কোনোদিনই বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়নি। তাই চিন ক্রমশ এগোতে এগোতে ডেমচক সেক্টর পর্যন্ত এসে গিয়েছে। প্রথমবারের সাংসদ নামগিয়াল মনে করেন, কংগ্রেস তোষণের রাজনীতি করে লাদাখকে ক্রমশ পতনের দিকে ঠেলে দিয়েছে।

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই সাংসদ আরও বলেন, ‘জওহরলাল নেহরু ফরওয়ার্ড পলিসি তৈরি করেছিলেন। যার অর্থ চিনের দিকে একটু একটু করে এগিয়ে যেতে হবে। আর দিনে দিনে তা ব্যাকওয়ার্ড পলিসিতে পরিণত হয়। ক্রমশ চিন আমাদের এলাকার মধ্যে ঢুকতে শুরু করে আর আমরা পিছিয়ে আসসতে শুরু করি।’ তিনি মনে করেন, কংগ্রেসের জন্যই আজ আকসাই চিন সম্পূর্ণভাবে চিনের অধিকারে রয়েছে।

বছর ৩৪-এর এই সাংসদের কথায়, ৫৫ বছররে কংগ্রেস আমলে লাদাখকে তেমন গুরুত্ব দেওয়া হয়নি বলেই ডেমচক পর্যন্ত এগিয়ে আসতে পেরেছে চিন।

গত বছর জুলাই মাসে ভারতকে ডেমচকে একটি নালা তঐরি করতে বাধা দেয় চিন। এবছর জুলাই মাসেও লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোল পেরিয়ে ঢুকে পড়ে চিন সেনা। সেখানে কয়েকজন তিব্বতি দলাই লামার জন্মদিন উপলক্ষে তিব্বতের পতাকা তুলছিল। পরে সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত জানান যে, চিন সেনা ঢুকে পড়েছিল ওই অঞ্চলে।

তাই সাংসদ মনে করেন, এইসব সংঘাত পেরিয়ে এবার লাদাখ সত্যিকারের গুরুত্ব পেল। এমনকি মোদী সরকার উন্নয়নের যে উদ্যোগ নিয়েছে তাতে সীমান্তে বসবাসকারী মানুষও সন্তুষ্ট হবে বলে মনে করেন তিনি। এছাড়া বিজেপি সাংসদ আরও উল্লেখ করেন মোদী সরকারের আমলে যেভাবে স্কুল, হাসপাতাল, রাস্তা ও যোগাযিগ ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে তাতে সীমান্ত অনেক বেশি সুরক্ষিত হয়েছে।

জম্মু ও কাশ্মীর থেকে Article 370 তুলে নেওয়ার পর সরকারের সিদ্ধান্তের সমর্থনে লোকসভায় বক্তব্য রাখার পর রাতারাতি জনপ্রিয় হয়ে যান লাদাখের বিজেপি সাংসদ। দেশের ৭৩ তম স্বাধীনতা দিবসে নাচতেও দেখা যায় তাঁকে। ওই বিজেপি সাংসদদের লোকসভায় বক্তব্যের পর তাঁকে তারিফ করেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তারপর থেকেই রাজনীতির চর্চায় রয়েছেন তিনি।

টুইটারে পোস্ট করা ২৮-সেকেন্ডের সংক্ষিপ্ত ভিডিওটিতে, নামগিয়ালকে সানগ্লাস এবং বাদামী ‘গাউচা’ পরে নাচতে দেখা যায় তাঁকে। শুধু তাই নয় তাঁর সঙ্গীদের নাচের ক্ষেত্রেও রীতিমতো নেতৃত্ব দিতে দেখা গেছে লাদাখের বিজেপি সাংসদকে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ