ফাইল ছবি

ইউহান: নভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত চিন, মৃতের সংখ্যা বাড়ছে হু হু করে। এই পরিস্থিতিতে সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, ভারতীয় বায়ুসেনার ত্রাণবাহী বিমানকে সবুজ সংকেত দিতে ইচ্ছে করেই দেরি করা হচ্ছে। ঠিক এমনটা জানা যাওয়ার পরেই এই তথ্য অস্বীকার করছে চিন।

করোনার কেন্দ্রবিন্দু ইউহানে চিকিত্‍সা সংক্রান্ত জিনিসপত্র পৌঁছে দিতে এবং সেখানে আটকে পড়া বাকি ভারতীয়দের ফেরাতে ওই বিমানটির পৌঁছনোর কথা। তবে চিন এই পরিপ্রেক্ষিতে জানিয়েছে হূয়াইপ্রদেশের পরিস্থিতি বেশ জটিল এবং এই পরিস্থিতি প্রতিরোধ এবং নিয়ন্ত্রণ পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে।

তিনি জানিয়েছেন, দুই দেশের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রক যোগাযোগ রাখছে এবং চিন অনুমতি দিচ্ছে না এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি।

চিনের উহান থেকে ভারতীয়দের ফিরিয়ে আনতে এর আগে এয়ার ইন্ডিয়ার দুটি বিশেষ বিমান গিয়েছিল। তার পরেও এখনও সেখানে কয়েকজন ভারতীয় আটকে আছেন বলে খবর। তাঁদের ফিরিয়ে আনতে এবং করোনাভাইরাসের সংক্রমণে প্রায় মৃত্যুপুরীতে পরিণত উহানে মেডিক্যাল সামগ্রী পৌঁছে দিতে ভারত বায়ুসেনার একটি বিমান পাঠাবে বলে গত ১৭ তারিখ ঘোষণা করে। কিন্তু বিমানটিকে ছাড়পত্র দিতে চিনের প্রশাসন ইচ্ছাকৃত ভাবে দেরি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

ভারতীয় বায়ুসেনার সি-১৭ গ্লোবমাস্টারের উহানে যাওয়ার কথা। এটিই ভারতীয় বায়ুসেনার বৃহত্তম বিমান। উহানে আটকে পড়া বাদবাদি ভারতীয়দের পাশাপাশি প্রতিবেশী দেশগুলির নাগরিকদেরও এই বিমানে ফিরিয়ে আনার কথা। চিন অবশ্য বিমানটিকে সবুজ সংকেত দিতে দেরি হচ্ছে বলে অস্বীকার করেছে।