ফাইল ছবি

বেজিংঃ  যে কোনও মুহূর্তে বেঁধে যেতে পারে আমেরিকা এবং উত্তর কোরিয়ার মধ্যে মহাযুদ্ধ! এই অবস্থায় পিয়ংইয়ং থেকে লোহা এবং সামদ্রিক খাবার আমদানি বন্ধ করে দিল চিন। পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র এবং পরমাণু কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে রাষ্ট্রসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ উত্তর কোরিয়ার ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করার পর চিনের পক্ষ থেকে এই পদক্ষেপ নেওয়া হল।

চিনের বাণিজ্য মন্ত্রক আজ এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, আজ মঙ্গলবার থেকে কয়লা, লোহা, আকরিক লোহা এবং সামদ্রিক জাতীয় সব ধরনের খাবার উত্তর কোরিয়া থেকে আমদানি করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করা হল। উত্তর কোরিয়ার রফতানি বাণিজ্যকে টার্গেট করে আরোপিত এই নিষেধাজ্ঞার ফলে দেশটির বার্ষিক ক্ষতির পরিমাণ দাঁড়াবে ১০০ কোটি ডলার। নিরাপত্তা পরিষদে পাস হওয়া প্রস্তাবে উত্তর কোরিয়া থেকে কয়লা, লোহা, লৌহ আকরিক, সিসা, আকরিক সিসা, মাছ এবং অন্যান্য সামুদ্রিক পণ্য রপ্তানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেইসঙ্গে উত্তর কোরিয়া থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শ্রমিক পাঠানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ায় বিদেশি পুঁজি বিনিয়োগকেও এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় আনা হয়েছে। মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে উত্থাপিত এই নিষেধাজ্ঞা প্রস্তাবের পক্ষে উত্তর কোরিয়ার দীর্ঘ দিনের মিত্র চিনও ভোট দিয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।