নয়াদিল্লি: ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়া একা চিনা জওয়ানকে আটক করল সেনা। সোমবার লাদাখের ডেমচক এলাকা থেকে ওই চিনা জওয়ানকে আটক করা হয়েছে। আটক ওই চিনা নাগরিক গোপনে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে সেনা-জওয়ানদের গতিবিধির উপর নজর রাখার চেষ্টা করছিল কিনা তা জানার চেষ্টা চলছে। আটক ব্যক্তির কাছ থেকে চিনের সেনাবাহিনীর পরিচয়পত্র মিলেছে।

পড়ুন আরও- পুজো মণ্ডপে প্রবেশ নিষেধ! অর্ডারে ঠিক কী কী বলল হাইকোর্ট

লাদাখে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়া এক চিনা জওয়ানকে আটক করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। জানা গিয়েছে, এদিন ডেমচকে ওই জওয়ানকে দেখে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন ভারতীয় জওয়ানরা।

পড়ুন আরও- হাতে ১০ টাকার নোট থাকলেই কেল্লাফতে, পেতে পারেন ২৫ হাজার

সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে জানা গিয়েছে, ভুল করে ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছেন বলে এদিন ধরা পড়ার পর দাবি করেছেন ওই জওয়ান। যদিও চিনা সেনার কর্পোরাল পদমর্যাদার এই বয়ানে এখনই কোনও স্পষ্ট সিদ্ধান্তে আসতে চাইছে না ভারতীয় সেনাবাহিনী। ওই জওয়ানকে দফায়-দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করছেন সেনাকর্তারা।

ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে ওই চিনা সেনার অন্য কোনও উদ্দেশ্য ছিল কিনা তা জানার চেষ্টা চলছে। একইসঙ্গে এদেশে ঢুকে ওই ব্যক্তি কার কার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিলেন তাও জানার চেষ্টা চালাচ্ছে সেনাবাহিনী।

যদিও জানা গিয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদের পর যদি সত্যিই দেখা যায় ওই সেনা ভুলবশত ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে পড়েছিলেন তবে তাঁকে নির্দিষ্ট পদ্ধতি মেনে চিনা সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সেনার আগ্রাসনের পর থেকে উত্তপ্ত পরিস্থিতি রয়েছে ভারত-চিন সীমান্তে। গত কয়েকমাসে সীমান্ত উত্তেজনা কমাতে একের পর এক বৈঠক করেছে দুই দেশ।

কিন্তু এখনও পর্যন্ত সীমান্ত সমস্যা পুরোপুরি মেটানো সম্ভবপর হয়নি। একদিকে আলোচনা চলছে অন্যদিকে দুই দেশই যুদ্ধের জন্য তৈরি। দিন যত এগোচ্ছে সীমান্তের দুদিকেই সেনা সমারোহ ও আগ্নেয়াস্ত্র মজুতের বহর বাড়ছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।