বেজিংঃ   অস্থির মায়ানমারের সীমান্তের কাছে সামরিক মহড়া চালাল চিনের গণমুক্তি ফৌজ বা পিএলএ।  মায়ানমার সেনাবাহিনীর সঙ্গে গত কয়েকসপ্তাহে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে স্থানীয় গোষ্ঠীগুলির।  সেই অশান্তি যাতে চিনের মধ্যেও ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্যে হঠাত করেই সীমান্তে সামরিক মহড়া চালাল বেজিং।

চিনের সরকারি বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়েছে, পদাতিক, গোলন্দাজ এবং বিমান বাহিনী চিনের দক্ষিণ অংশে এই মহড়ায় অংশ নিয়েছে।  মহড়ায় গোলাগুলির অনুশীলন চালানো হয়েছে।  মায়ানমার সীমান্তের কাছে চিনা বিমান বাহিনী এবং স্থল বাহিনী যথেষ্ট গোলাগুলি ব্যবহার করেছে।  সেনাবাহিনীর তরফে জানানো হয়েছে, এই মহড়া নতুন কিছু না।  বছরে এমন মহড়া করা হয়ে থাকে।  চিনা সামরিক বাহিনীর সিনিয়র কর্নেল ফাং সিন বলেন, জাতীয় নিরাপত্তা রক্ষার পিএলএ’র দৃঢ় অঙ্গীকার মহড়ার মধ্য দিয়ে ফুটে উঠেছে।

মায়ানমার সীমান্তে অশান্তি পরিস্থিতি থেকে রক্ষা পেতে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে হাজার হাজার মানুষ চিনে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা যখন ঘটেছে।  আর তা ঠেকাতেই এই মহড়া চালানো হল, বলে মনে করছেন সামরিক পর্যবেক্ষকরা।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ