পাটনা: বৃদ্ধ বাবা মাদের জন্য স্বস্তির খবর৷ এবার সন্তান বৃদ্ধ বয়সে বাবা মাকে অসহায় অবস্থায় ফেলে রাখলে বা না দেখাশুনা করলে জেলের মুখ দেখবে৷ এমনই ঘোষণা বিহার সরকারের৷ মঙ্গলবার এক সরকারি বিবৃতিতে নীতিশ কুমার সরকার জানিয়ে দিয়েছে যেসব সন্তানরা তাঁদের বাবা মায়ের দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করবেন, তারা শ্রীঘরে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত থাকুন৷

এই সিদ্ধান্তে চূড়ান্ত সিলমোহর দিয়েছে নীতীশ কুমার সরকার৷ জানানো হয়েছে এই সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে মোট ১৭টি প্রস্তাব রাখা হয়েছে৷ যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য শাস্তি হিসেবে কারাবাসের ঘোষণা৷ বলা হয়েছে এই ক্ষেত্রে অভিযোগ প্রমাণিত হলে, সন্তানের জন্য কারাবার অপেক্ষা করছে৷ যদি বাবা মা অসুস্থ হন, তাসত্ত্বেও সন্তান দেখাশোনা না করে, তাহলে সন্তানের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে৷

আরও পড়ুন : পাক আকাশপথ ব্যবহার করবেন না মোদী

তবে এক্ষেত্রে সন্তানের বিরুদ্ধে বাবা মাকে পুলিশের দ্বারস্থ হতে হবে৷ অভিযোগ দায়ের করতে হবে৷ যদি অভিযোগ প্রমাণিত হয়, তাহলে দোষের গুরুত্ব অনুযায়ী অবশ্যই শাস্তি পাবে অভিযুক্ত সন্তান৷ বিহার মন্ত্রিসভা ইতিমধ্যেই এই প্রস্তাবগুলিতে সিলমোহর দিয়েছে৷ এখন শুধুই বিধানসভার স্ট্যাম্পের অপেক্ষা৷

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার জানিয়েছেন, বর্তমান সময়ের প্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছিল৷ বহু ঘটনা সামনে আসছিল, যেখানে অবহেলিত হতে হচ্ছিল বৃদ্ধ বাবা মাকে৷ যাদের সন্তানের আর্থিক সঙ্গতি থাকা সত্ত্বেও তারা বাবা মাকে দেখছে না৷ সেক্ষেত্রে বাবা মা আইনের সাহায্য নিয়ে যাতে শেষ বয়সে নিজেদের মাথার ওপরে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করতে পারেন, সেদিকেই নজর রাখতে চাইছে সরকার৷

আরও পড়ুন : তিনঘন্টার বেশি থাকা যাবে না তাজমহলে

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি এক সমীক্ষা জানাচ্ছে দেশে ষাট বছরের ওপর বয়সীদের সংখ্যা প্রায় ১০ কোটি বা ১০০ মিলিয়ন৷ এর মধ্যে বেশিরভাগই নিজেদের সন্তানদের হাতে অত্যাচারিত৷ একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা তাদের সমীক্ষায় জানিয়েছে বিহারে এই সংখ্যা বেশ বেশি৷ আর এই রাজ্যে সন্তানদের অবহেলা সহ্য করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন নীতীশ কুমার৷