ম্যানিলা: ভয়াবহ ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল ফিলিপিন্স। রিখটার স্কেলে যার মাত্রা ছিল ৬.৪। ভূমিকম্পের জেরে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন বহু মানুষ। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে মানুষের মধ্যে।

বুধবার এই প্রবল ভূ-কম্পন অনুভূত হয় দক্ষিণ ফিলিপিন্সের মিনডানাও এলাকায়। ইউনাইটেড স্টেটস জিওলজিক্যাল সার্ভে বা ইউএসজিএসের রিপোর্ট অনুযায়ী, ভূমিকম্পের উত্‍পত্তিস্থল ছিল ১৪ কিলোমিটার গভীরে। যার দূরত্ব চিল কলম্বিও শহর থেকে ৭.৭ কিলোমিটার দূরে। এক শিশুর মৃত্যুর পাশাপাশি, অন্তত ১২ জনের আহত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে।

ফিলিপিন্সে স্থানীয় সময় সন্ধে ৭.৩৭-এ ভূমিকম্প হয়। আতঙ্কে লোকজন বাড়ির বাইরে বেরিয়ে আসেন। তবে, সুনামির সতর্কতা জারি করা হয়নি।

গত এপ্রিল মাসে ফিলিপিন্সের রাজধানী ম্যানিলার উত্তর-পশ্চিমে জোরালো ভূমিকম্পে কমপক্ষে ১৬ জনের মৃত্যু হয়। ফিলিপিন্স ইনস্টিটিউট অফ ভলকানোলজি অ্যান্ড সিসমোলজি জানায়, ভূমিকম্পের তীব্রতা ছিল ৬.১। ম্যানিলার উত্তর-পশ্চিমে পামপানগা প্রদেশে ধসে পড়া ভবনের নীচে বহু লোক আটকেও ছিল। পরে তাঁদের অনেকেই উদ্ধার করা সম্ভব হয়। ভূমিকম্পে এই প্রদেশটিতেই সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে সরকারি ভাবে দাবি করা হয়। রাজধানী ম্যানিলাতেও ভূমিকম্পটি অনুভূত হয়েছে।

গত জুলাইতেও ফিলিপিন্সের বিখ্যাত পর্যটনস্থল বাটানেতে একঘণ্টার মধ্যে ৫.৬ এবং ৫.৯ মাত্রার দু’টি ভূমিকম্প হয়েছিল। তাতে ৯ জনের মৃত্যু হয়েছিল। ১৯৯০ সালে ফিলিপিন্সের উত্তর অংশে ৭.৭ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় ২০০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছিল।