নয়াদিল্লি: চিনা রসুনে দেশের মানুষের মারাত্মক ক্ষতি করছে। সম্প্রতি এমনই দাবি করেছেন গবেষকরা। চিনা দ্রব্য বর্জনের দাবি অনেক দিন ধরেই উঠছে ভারতে। তালিকায় নয়া সংযোজন চিনা রসুন৷

আরও পড়ুন: ‘সীমান্ত সমস্যা ভারত-চিন উভয়ের কাছেই উদ্বেগের ’

গোটা বিশ্বে ৮০ শতাংশই যোগান দেয় চিন। কিন্তু, এই চিনা রসুন স্বাস্থ্যের পক্ষে আদৌ সুবিধের নয়। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, চিনা রসুনে উচ্চমাত্রায় মিথাইল ব্রোমাইড ছাড়াও রয়েছে লেড এবং সালফাইটস। গবেষকরা বলছেন, এইসব রাসায়নিক উপাদন রসুনের গুণাবলি নষ্ট করে, উলটে ক্যানসারের মতো অসুখের ঝুঁকি অতিমাত্রায় বাড়িয়ে তুলছে। শুধু তাই নয়, মানবশরীরের রেসপিরেটরি ও সেন্ট্রাল নার্ভাস সিস্টেমকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে এই চিনা রসুন। শেষ এখানেই নয়। রসুনকে পরিষ্কার ঝকঝকে করে ক্রেতাদের কাছে অ্যাপিল বাড়িয়ে তুলতে ক্লোরিন ব্লিচ করা হয়। তাও ক্ষতি করে।

আরও পড়ুন: চিনের বাড়াবাড়ির মধ্যেই বাংলায় পৌঁছে গেল C-130J মিলিটারি হারকিউলিস এয়ারক্র্যাফট

এমনকী অর্গানিক রসুন বলে চিন যা পাঠাচ্ছে, তাতেও রাসায়নিক থাকে। ফলে সমান ক্ষতিকারক। যাতে রসুন নষ্ট না হয় তার জন্য জাহাজে তোলার আগে রাসায়নিক স্প্রে করতে হয়। ব্লিচ করা হয় রসুনের গায়ে থাকা স্বাভাবিক ডার্ক স্পট গায়েব করতে।