রাঁচি: আই এন এক্স মিডিয়া কেলেঙ্কারি মামলায় ১০৬ দিন জেল খেটে বেরিয়েই প্রাক্তন কেন্দ্রীন অর্থমন্ত্রীর হুঙ্কার বিজেপির শাসনে দেশ ও ঝাড়থণ্ড দুর্বল হয়েছে।

জামিন পাওয়ার পর পি চিদম্বরমের এটাই প্রথম সাংবাদিক সম্মেলন। শুক্রবার রাঁচি প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দুজনেই ‘নিকম্মা’।

চিদম্বরমের হুঙ্কার, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিসগড় সহ বিভিন্ন রাজ্য থেকে বিজেপি সরকারকে উপড়ে ফেলেছেন জনগণ। ঝাড়খণ্ডেও তেমনই হতে চলেছে। বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির ভরাডুবি হবে।

আই এন এক্স মিডিয়া কেলেঙ্কারি মামলায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী চিদম্বরমের সাজা হয়। তাঁকে গ্রেফতার করা নিয়ে তীব্র আলোড়ন ছড়িয়েছিল সর্বত্র। তাঁর বাংলোর প্রাচীর টপকে সিবিআই অফিসারদের অভিযান নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক তুঙ্গে ওঠে। কংগ্রেস একে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বলে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে।

গ্রেফতারির পর তিহার জেলে নিয়ে যাওয়া হয় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী কে। টানা ১০৬ দিন তিহার জেলে থেকে চিদম্বরম জামিন পান। বাইরে এসেই কেন্দ্রীয় সরকার ও বিজেপির বিরুদ্ধে একের পর এক আক্রমণ করছেন তিনি়।

সেই রেশ ধরে রাঁচির সাংবাদিক সম্মেলনে চিদম্বরম প্রবল আক্রমণ করেছেন বিজেপি-কে। রাজ্যে দ্বিতীয় দফার নির্বাচন শনিবার। তার আগেই চিদম্বরমের সাংবাদিক সম্মেলন তৈরি করেছে আলোড়ন।

ঝাড়খণ্ড প্রদেশ কংগ্রেস ভবন থেকে চিদম্বরমের হুঁশিয়ারি, দেশের অর্থনীতি লাগাতার দুর্বল হচ্ছে। সরকারের হুঁশ নেই। সংসদ ভবন থেকে সড়ক সর্বত্র সমালোচিত হচ্ছে বিজেপি। বিভিন্ন রাজ্যে বিজেপির পরাজয় নিয়ে তাঁর দাবি, নিকম্মা-দের বুঝে নিয়েছেন জনগণ।

ঝাড়খণ্ডের মতো খনি ও শিল্প সমৃদ্ধ রাজ্যের অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই খারাপ বলেছেন চিদম্বরম। বেকারত্বের হার ভয়ঙ্করভাবে উর্ধমুখী বিজেপির আমলেই বলে জানান তিনি।

৭ ডিসেম্বর দ্বিতীয় দফার ভোট ঘিরে ঝাড়খণ্ড সরগরম। এই পর্বে মুখ্যমন্ত্রী রঘুবর দাস নামছেন পূর্ব জামশেদপুর কেন্দ্রে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা