নয়াদিল্লি: আইএনএক্স মিডিয়ার আর্থিক তছরুপ মামলায় নাটকীয়ভাবে গ্রেফতার হয়েছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরম। বৃহস্পতিবার তাঁকে সিবিআই আদালতে নিয়ে যাওয়া হলে তিনি প্রচন্ড অবাক হন।

রাউজ অ্যাভিনিউ কমপ্লেক্সে পৌঁছে সিবিআই আধিকারিকদের সঙ্গে কথোপকথনে চিদাম্বরম আদালতের ঘরের পরিসর দেখে হতবাক হন। তিনি বলেন, আদালতের ঘর খুব ছোট। যে সিবিআই অফিসাররা তাঁকে কোর্টরুমে নিয়ে যান তাদের তিনি বলেছেন, “আদালতের ঘর খুব ছোট, আমি ভেবেছিলাম নতুন জায়গায় আমি ভালো ঘর থাকবে আদালতে।”

লোক ভর্তি আদালতের ঘরে, সিবিআই অফিসার চিদাম্বরমকে বলেন, আদালতের এই ঘরগুলি একটু ছোট। যেটা সত্যি একটা সমস্যা। তাঁরা আরও বলেন, “বড় কোন ঘটনায় এটি সত্যি একটি সমস্যা। কয়লা কান্ডের মত ঘটনায় সব অভিযুক্ত ও তাঁদের আইনজীবিদের একসঙ্গে আদালতের ঘরে জায়গা দেওয়া অসম্ভব।”

দিল্লি হাইকোর্ট সম্প্রতি চিদম্বরমকে অন্তর্বর্তী জামিন দিতে অস্বীকার করে। কোর্ট বলে, চিদাম্বরাম-ই এই মামলার মূল অভিযুক্ত। তার পর সব আসা জলে যায় ইউপিএ-এর এই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির।

চিদম্বরাম পুত্র কার্তি পুরো বিষয়টি নিয়ে আইএনএক্স-কে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন। তিনি অর্থমন্ত্রক এবং আইএনএক্স-এর মধ্যে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালন করতে থাকেন। কার্তির কোম্পানি, চেস ম্যানেজমেন্ট প্রাইভেট লিমিটেডর দ্বারস্থ হন ইন্দ্রানী মুখার্জি। তদন্তে সিবিআই জানতে পারে ইন্দ্রানী কার্টিকে এক মিলিয়ন ডলার দেবে বলে চুক্তি করেছে। একটি কোম্পানির নামে কয়েক লক্ষ টাকার চেক পাওয়া যায়। ওই কোম্পানি মালিক কার্তি না হলেও তিনি ওই কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত। সিবিআই আরও অভিযোগ করে, পুরো লেনদেনে তৎকালীন অর্থ মন্ত্রী চিদম্বরাম কেও ‘পার্টি’ করা হয়।

২০০৭ সালে চিদম্বরাম অর্থমন্ত্রী ছিলেন। অভিযোগ, সেই সময় এফইপিবি-এর মাথায় বসে তিনি আইএনএক্স-কে বেআইনি কাজকর্ম করতে দিয়েছিলেন। আইএনএক্স মালকিন ইন্দ্রানী মুখার্জি সিবিআই জেরার মুখে স্বীকার করেছিলেন , ২০০৮ সালে অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে তিনি আইএনএক্স মিডিয়ার জন্য সেরা ‘ডিল’ করতে পেরেছিলেন। সিবিআই অভিযোগ জানিয়েছে, আইএনএক্সের বিরুদ্ধে তদন্ত করত বিকল্পে চিদম্বরম তাদের এফডিআই-এর জন্য পুনরায় আবেদন করতে বলেন।

রাউজ অ্যাভিনিউ কমপ্লেক্স ২০১৯ এর এপ্রিলে উদ্বোধন হয়। প্রতারণার সব কেসগুলিকে এই আদালতে জায়গা দেওয়া হয়। দিল্লি হাই কোর্ট একটি নোটিশের মাধ্যমে দিল্লির সব আদালতের প্রতারণা মামলাগুলিকে এই নতুন কমপ্লেক্স থেকে কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে।