নয়াদিল্লি: এনআরসির নামে মুসলিমদের ডিটেশন ক্যাম্পে রাখা হলে গণ আন্দোলনের হুঁশিয়ারি প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা পি চিদম্বরমের। জাতীয় নাগরিকপঞ্জী ইস্যুতে দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তব্য রাখেন চিদম্বরম। সেখানেই এনআরি নিয়ে দলের অবস্থানও স্পষ্ট করেন এই কংগ্রেস নেতা।

সিএএ ও এনআরসি ইস্যুতে দেশজুড়ে প্রতিবাদ চলছে। ইতিমধ্যেই সিএএ ও এনআরসি লাগু না করার হুঁশিয়ারি দিয়েছে একাধিক রাজ্য। কেরল, পশ্চিমবঙ্গ-সহ একাধিক রাজ্য কেন্দ্রের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলেছে। কংগ্রেস বরাবরই এনআরসির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছে। জেএনইউ ক্যাম্পাসে এনআরসি শীর্ষক আলোচনায় যোগ দিয়েছিলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদম্বরম। ক্যাম্পাসে বক্তব্য রাখতে গিয়ে চিদাম্বরম বলেন, ‘এনআরসি ঢাকতেই সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এনেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷’

চিদম্বরমের আরও অভিযোগ, অসমে এনআরসির জেরে ১৯ লক্ষ নাম বাদ গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে থেকে ১২ লক্ষ হিন্দুকে আশ্রয় দিতেই এমন আইন আনা হয়েছে বলে দাবি চিদম্বরমের। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘ওঁরা যদি ‘এক্সক্লুডেড’ নাম করে অন্যদের বাদ দিতে চায়, তাহলে তাঁরা হবেন মুসলিম। তাঁদের দেশের বাইরে করে দেওয়া হবে। মুসলিমদের ডিটেনশন ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হলে বড়সড় গণআন্দোলন হবে।’

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়েও একইভাবে দেশের একাধিক রাজ্যে চলছে বিক্ষোভ-আন্দোলন। দিল্লির শাহিনবাগে গত ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে সিএএ-র বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে। যদিও সেই আন্দোলনমঞ্চে যাননি কংগ্রেস নেতারা।

এবিষয়ে চিদম্বরম জানান, সিএএ-র বিরোধিতা করলেও শাহিনবাগের আন্দোলনমঞ্চে গেলে কংগ্রেসের বিরুদ্ধেও রাজনৈতিক প্রচোরনা দেওয়ার অভিযোগ তুলবে গেরুয়া শিবির। বিজেপিকে সেই সুবিধা না দিতেই কংগ্রেসের এই কৌশল বলে জানান তিনি।