ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: অবশেষে সিবিআইয়ের মামলায় জামিন পেলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম। বর্তমানে ইডি হেফাজতে রয়েছেন তিনি। মঙ্গলবার শীর্ষ আদালতে এই মামলার শুনানিতে জামিন পেয়েছেন তিনি।

গত ৫সেপ্টেম্বর থেকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে ছিলেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী। আপাতত তিনি এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের হেফাজতেই থাকবেন বলে জানিয়েছে শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, পি চিদাম্বরমকে “অন্য কোনও মামলায় প্রয়োজন না হলে মুক্তি দেওয়া যেতে পারে”। এর আগে ওই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিল্লির তিহার জেলে ছিলেন। গত সপ্তাহে তিহার জেল থেকে তাঁকে ইডির হেফাজতে নিয়ে আসা হয়।

কয়েকদিন আগেই এই মামলার চার্জশিট পেশ করে সিবিআই। প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম ও তাঁর ছেলে কার্তি চিদম্বরমকে ইন্দ্রানী মুখোপাধ্যায় ৫ মিলিয়ন দলার ঘুষ দিয়েছিলেন বলে উল্লেখ করা হয়। ইন্দ্রাণীকে সেখানে ‘রাজসাক্ষী’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে।

সূত্রের খবর, তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার তরফে পেশ করা এই চার্জশিটে বেশ কয়েক জন শীর্ষ স্থানীয় কেন্দ্রীয় সরকারি আমলার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে সিবিআই। তাঁদের মধ্যে আছেন নীতি আয়োগের প্রাক্তন সিইও সিন্ধুশ্রী খুল্লার এবং ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ মন্ত্রকের প্রাক্তন সচিব অনুপ পূজারি৷ এ দিন সুপ্রিম কোর্টে চিদম্বরমের জামিনের আবেদনের শুনানি হয়, যেখানে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর জামিনের আবেদনের তীব্র বিরোধিতা করে সিবিআই৷

২০১৭ সালের ১৫ মে চিদম্বরমের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছিল ২০০৭ সালে আইএনএক্স মিডিয়াকে বেআইনিভাবে ফরেন ইনভেস্টমেন্ট প্রমোশন বোর্ডের ক্লিয়ারেন্স পাইয়ে দিয়েছিলেন তত্‍কালীন অর্থমন্ত্রী। এর পর ২০১৭ সালে চিদম্বরমের বিরুদ্ধে ইডি টাকা তছরুপের মামলা করে। এই মামলায় এর আগে কার্তি চিদম্বরমকে গ্রেফতার করা হলেও তিনি পরে জামিন পান।