প্যারিস: একযোগে হামলা৷ যে যেদিক থেকে পারছে আক্রমণকারীকে ক্ষতবিক্ষত করছে৷ এ যেন ‘চক্রব্যুহ’ সেই লড়াই৷ নাহ, আর বেরিয়ে আসতে পারেনি শত্রু৷ তাতে মরতেই হয়েছে৷ তিন হাজার মুরগি অনবরত খুবলিয়ে মেরে ফেলেছে হানাদারকে৷

চমকপ্রদ ঘটনা৷ ফ্রান্সের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের একটি স্কুলের খামারে কিছু মুরগি মিলে একটি ছোট শিয়ালকে মেরে ফেলেছে। এমনই খবর জানাচ্ছে বিবিসি৷ রিপোর্টে বলা হয়েছে, ব্রিটানিতে একটি মুরগির খাঁচায় সেই শিয়াল ঢুকে পড়ে৷ খাঁচার ঝাঁপ সেই মুহূর্তে পড়ে যায়৷ তারপরেই মুরগি বাহিনী তেড়ে আসে শত্রুর দিকে৷ খাঁচায় ৩,০০০ মুরগি ছিল বলে জানা যাচ্ছে।

আর রক্ষে পায়নি সেই শিয়াল৷ তাকে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে মেরে ফেলেছে মুরগির দল৷ পরে খামারের এক কোণে শিয়ালের মৃতদেহ মিলেছে৷

মুরগি ঠোঁট দিয়ে আক্রমণ করে৷ সেভাবেই হয়ত শিয়ালটিকে মেরে ফেলেছে তারা৷ বাইরে বের না হতে পেরে তাকে মরতেই হয়েছে৷ জানিয়েছেন, কৃষি বিশেষজ্ঞ প্যাসকেল ড্যানিয়েল। শিয়ালের ঘাড়ে ও দেহে মুরগির ঠুকরে দেওয়ার চিহ্ন মিলেছে৷

পড়ুন: পাক ছক বানচাল করতে ভারতের মাটিতেই বোমা ফেললেন ইন্দিরা

পাঁচ একর জমির উপর করা এই খামারে প্রায় ৬,০০০ মুরগি পালন করা হয়৷ দিনের বেলায় খাঁচার দরজা খুলে রাখা হয় যাতে মুরগীগুলো বাইরে ঘুরে-ফিরে বেড়াতে পারে। মনে করা হচ্ছে সেসময়ই শিয়াল শাবকটি মুরগির খাঁচায় ঢুকে পড়ে। এরপর স্বয়ংক্রিয় খাঁচাটির দরজা বন্ধ হয়ে যায়৷ জানা গিয়েছে শিয়ালটি নেহাতই শাবক৷ তার পাঁচ-ছয় মাস বয়স৷